সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

খুলনা-১ আসনে আওয়ামী লীগের পদধারীরা কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা

খুলনা অফিস : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে খুলনা-১ (দাকোপ-বটিয়াঘাটা) এর দাকোপ উপজেলায় প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসার হিসেবে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নিয়োগ পেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অপরদিকে টুঙ্গিপাড়ার ওসিখ্যাত দাকোপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ক্ষমতাসীনদের বিজয়ী করতে মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছেন এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এলাকা ঘুরে জানা গেছে, দায়িত্ব পেতে যাওয়া এ সব নেতারা নৌকার পক্ষে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। নির্বাচন কমিশনের নীতিমালা অনুযায়ী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত কেউ ভোট গ্রহণের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না।
সূত্র জানায়, সুতারখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নলিয়ান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস প্রিজাইডিং অফিসার, সুতারখালী ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্পাদক কে জি ভি জে বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনি মোহন সরদার সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, তিলডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তিলডাঙ্গা বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তন্ময় সরদার পোলিং অফিসার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক এনসি ব্লু বার্ড স্কুলের সহকারী শিক্ষক পল্লব বিশ্বাস পোলিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। এমনি করে আওয়ামী লীগের আরো অনেকেই ইতিমধ্যে নিয়োগ পেয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি নির্বাচন কমিশনের আরওপির ধারা উল্লেখ করে বলেন, নির্বাচনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের তালিকা বা তথ্য ভোটের ২/১ আগে ছাড়া দেয়া যাবেনা। অপরদিকে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহমুদ আলী জানান, দাকোপে ৪৯ জন প্রিজাইডিং অফিসারসহ ২৫০ জন সহকারী প্রিজাইডিং এবং ৫০০ জন পোলিং অফিসার হিসেবে নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করবেন। সে অনুযায়ী প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা দায়িত্ব পালনের জন্য প্রায় চূড়ান্ত বলে তিনি নিশ্চিত করেন।
অন্যদিকে টুঙ্গিপাড়ার ওসিখ্যাত দাকোপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোকাররম হোসেন ক্ষমতাসীনদলের বিজয়ে অনেকটা মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে তিনি গত শনিবার সকালে উপজেলার সকল ইউনিয়ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সম্পাদকদের দাকোপ থানায় ডেকে নিয়ে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এরপরের দিন রোববার সকালে সাবেক এমপি ননী গোপাল ম-ল সমর্থকদের একইভাবে থানায় ডেকে নিয়ে নৌকার বাইরে ভোট না দিতে বিশেষ সতর্ক বার্তা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এর আগে তিনি চালনা পৌরসভার মেয়র সনত বিশ্বাস, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম আক্কেল, ৮ নং ওয়ার্ড সভাপতি ও কাউন্সিলর আব্দুল গফুর সানার সাথে বিশেষ গোপন বৈঠক করেছেন। সেখানে ভোটের ২/১ দিন আগে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের ধরপাকড়সহ প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ