বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

জামায়াত নেতাদের প্রার্থিতা বহাল রেখেছে ইসি

স্টাফ রিপোর্টার: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের প্রার্থিতা বহাল রেখেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এই প্রার্থিতা বাতিলের সুযোগ ইসির হাতে নেই বলেই তাদের প্রার্থিতা বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
গতকাল রোববার বিকেল থেকে অনুষ্ঠিত ইসি’র কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। রাত সাড়ে ৮টার দিকে এক ব্রিফিংয়ে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ তথ্য জানিয়েছেন। এছাড়া, উচ্চ আদালতের আদেশে যেসব বিএনপি প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে, তাদের আসনগুলোতে পুনঃতফসিল করে নতুন করে নির্বাচন আয়োজন বা প্রার্থী পরিবর্তনের সুযোগ নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি।
ইসি সচিব বলেন, আজকের (রোববার) কমিশন সভায় জামায়াতের ২৫ প্রার্থীর প্রার্থিতা বিষয়ে হাইকোর্টের আদেশ চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হয়েছে। আদেশ বিশ্লেষণ করে কমিশন দেখেছে, বিদ্যমান আইনে এসব প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করার কোনো সুযোগ নেই। ফলে এই ২৫ জামায়াত নেতার প্রার্থিতা বহাল থাকছে।
উচ্চ আদালতের রায়ে বিএনপি নেতাদের প্রার্থিতা বাতিলের বিষয়ে ইসির সিদ্ধান্ত জানিয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, উচ্চ আদালতের আদেশে যেসব বিএনপি প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে, সেসব আসনে প্রার্থী পরিবর্তন বা পুনঃতফসিলের দাবি জানিয়েছিল বিএনপি। কিন্তু আদালতের আদেশ ও বিএনপির দাবি চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হয়েছে। কমিশন এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে, উচ্চ আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে পুনঃতফসিল বা প্রার্থী পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই। ওইসব আসনে যারা বর্তমানে বৈধ প্রার্থী রয়েছেন, তাদের বাইরে নতুন করে কাউকে প্রার্থিতা দেয়া যাবে না।
প্রসঙ্গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতে ইসলামীর ২৫ প্রার্থীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব সৈয়দ রেজাউল হক চাঁদপুরী একটি রিট দায়ের করেন। রিটটির পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর। গত সোমবার ও মঙ্গলবার রিটের শুনানি হয়। রিটে নির্বাচন কমিশন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, জামায়াতের আমীর, সেক্রেটারি জেনারেলসহ ২৫ প্রার্থীকে বিবাদী করা হয়েছে।
১৮ ডিসেম্বর বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বিষয়ে রিট শুনানি শেষে রুল জারি করে আদেশ দেন। আদেশে তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিবসহ চারজনের আবেদন তিনদিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থিতার বিষয়ে আমরা আজ হাইকোর্টের চিঠি পেয়েছি। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে (রবি/সোমবার) মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ