মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বরিশালে বিএনপি জামায়াতের ৪৫ নেতাকর্মী গ্রেফতার

বরিশাল অফিস : বরিশাল মহানগর পুলিশ গত দুইদিনে নগর জুড়ে বিশেষ অভিযানের নামে বিএনপি জামায়াতের ৪৫ নেতাকর্মীকে আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে জামায়াতের ১৬ জন এবং বিএনপির ২৪ জন রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে মহানগর বিএপির সহ-সভাপতি সৈয়দ আহসান কবির হাসান এবং মহানগর জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান, যুবদল নেতা কামরুজ্জামান রতন রয়েছে। আটক অন্যরা হলেন মোঃ সাইফুর রহমান, মোঃ শাহ আলম, মোঃ মাহবুবুর রহমান, মোঃ হুমায়ুন কবির, মোঃ মেজাম্মেল হোসেন, মোঃ ফিরোজ, মোঃ রাকিব হোসেন, মাওঃ ইমাম হাসান, সেকেন্দার মামুন, মাস্টার আবু আশ্রাফ, মোঃ নোমান, মোঃ মন্টু, মোঃ বাচ্চু, মশিউর রহমান রিয়াজ, মোঃ মাসুম বিল্লাহ, বাকী বিল্লাহ, আরিফ বিল্লাহ, বিএনপির ২৩ ওয়ার্ড সেক্রেটারি রেদোয়ান, কর্মী সেলিম, রাসেল, আফরোজা নাসরিন, আঃ জলিল, প্রিন্স, বাবার খালেদ, মাসুম বিল্লাহ, ফরহাদ ও মন্টু খা, ফিরোজ তালুকদার, আল-আমিনসহ ২৪ জন। আটকের বিষয় লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে জেলা রিটানিং অফিসারের নিকট প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছেন বরিশাল সদর ৫ আসনের ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী এডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার।
এদিকে গতকাল রাতে পুলিশ বরিশালে ২৩ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও সদস্য সচিব এবং জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও বরিশাল নগর জামায়াতের আমীর এডভোকেট মুয়াযযম হোসাইন হেলালের বাসভবনে হানা দেয়। পুলিশ তার তার বাসভবনে অভিযানের নামে ব্যাপক তল্লাশি চালিয়ে নির্বাচনের সময় বরিশালে না থাকার প্রকাশ্য হুমকি প্রদান করেন।
ভোটের সময় যত ঘনিয়ে আসছে বরিশালে নির্বাচনের পরিবেশ ততই সংঘাতময় করে তুলছে পুলিশ ও আওয়ামী জোটের কর্মীরা। পুলিশ বিএনপি জোটের নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গণগ্রেফতার, গায়েবি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে ভয়াবহ ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে কর্মীদের মাঠে থাকার হুমকি দিচ্ছে। অপরদিকে আওয়ামী জোটের নেতাকর্মীরা প্রতিপক্ষের প্রার্থী এবং নেতাকর্মীদের ওপর বেপরোয়া হামলা, অব্যহত সন্ত্রাস, নগ্ন পেশী শক্তির ব্যবহার এবং সকল অপতৎপরতার কারণে নির্বাচনের স্বাভাবিক পরিবেশ বলতে বরিশালে কিছুই নেই বলে ঐক্যফ্রন্ট তথা ধানের শীষ প্রতিকের প্রর্থীরা অভিযোগ করেন।
তারা বলেন, বাড়ী-ঘর, নির্বাচনী কার্যালয়সহ বিভিন্নস্থানে পুলিশ হানা দিয়ে বিএনপি জোটের নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতার এবং তাদের অব্যহত হুমকি দিয়ে চলছে, যাতে তারা এলাকা ছেড়ে চলে যায়। আওয়ামী দলীয় প্রর্থীর পক্ষ নিয়ে পুলিশ নেই এমন কোনো কাজ করছেনা। অপরদিকে সরকার দলীয় প্রর্থী এবং তার তৃনমূল পর্যয়ের আওয়ামী নেতাকর্মীরা বিরোধী দলের নেতাকর্মী এবং তাদের বাড়ী-ঘর ও নির্বাচনী কার্যালয় বন্ধ করে দিচ্ছে। সশস্ত্র মহড়া ও বেপরোয়া হামলা চালিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের মারধর ও আহত করে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হচ্ছে। পুলিশ এবং সরকার দলীয় সমর্থকদের পেশী শক্তি এবং ক্ষমতার দাপট নির্বাচনের পরিবেশ ব্যহত করে তুলছে। বিরোধী দলের বিশেষ করে বিএনপি জোটের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচার কাজে মাঠে যাতে থাকতে না পারে তার সকল আয়োজন সম্পন্ন করছে পুলিশ এবং সঙ্গিয় থাকছে সরকারী জোটের নেতাকর্মী ও সশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী। তাই নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা এবং নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ অনিশ্চয়তার দিকে যাচ্ছে।
এদিকে নাগরিক সমাজ ও পর্যবেক্ষক মহল নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সংঘাত-সংঘর্ষের আশংকা করছেন। একপাক্ষিক অত্যাচার নির্যাতন প্রতিরোধে সাধারণ মানুষ প্রতিরোধে মাঠে নেমে আসলে পরিস্থিতে ভয়াবহ রুপ নিতে পারে বলে তারা মনে করেন। এ ব্যাপারে বরিশালের নাগরিক সমাজের সদস্য ডাঃ মিজানুর রহমান বলেন, নিরেপক্ষে নির্বাচনের কোন পরিবেশ নেই। একটি দল ও পুলিশ প্রশাসন প্রকাশ্যে আরএকটি দলের নেতাকর্মীদের উপর হামলা এবং পুলিশের বেপরোয়া গ্রেফতার ও বিনা কারণে অভিযান পরিচালনা নির্বাচনের কোন সুষ্ঠু পরিবেশ হতে পারেনা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাদ ও নিরপেক্ষ হওয়ার কোন আলামত বর্তমান পরিবেশে বিরাজ করছেনা।
এদিকে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি এবং ভোটের মাঠে প্রশাসনকে নিরপেক্ষ থাকা, বিনা করণে হামলা-মামলা থেকে বিরত থাকতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ২৩ দলীয় জোটের বরিশালের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। তারা আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি এবং অবৈধ আটকের তীব্র নিন্দ্র ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেন। বিবৃতিদাতারা হলেন, বিএনপির যুগ্ন-মহাসচিব ও বরিশাল সদর আসনের ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও বরিশাল মহানগর জামায়াতের আমীর এডভোকেট মুয়াযযম হোসাইন হেলাল, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মাওঃ আবুল হাসানাত মোঃ নুরুল্লাহ, জেলা পূর্ব জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আবদুল জব্বার, জেলা পশ্চিম জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আঃ মান্নান, মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর আলহাজ্ব বজলুর রহমান বাচ্চু, মহানগর বিএনপির সেক্রেটারি জিয়া উদ্দিন সিকদার, জামায়াতের সেক্রেটারি জহির উদ্দিন মু. বাবরসহ ২৩ দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ