বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০
Online Edition

খামোশ বললেই মানুষের মুখ বন্ধ হবে না -প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: জামায়াত নিয়ে প্রশ্ন শুনে রেগে যাওয়া ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেনের তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন, তিনি মানুষের মুখ বন্ধ করে দিতে চাইলেও মানুষের মুখ বন্ধ হবে না। গতকাল শুক্রবার বিকালে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে  আওয়ামী লীগ আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। সভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন। সভা পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ এবং উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন।
এর আগে সকালে মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে জামায়াতের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে এক প্রশ্নে বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানান ড. কামাল হোসেন। সাংবাদিককে ধমকের সুরে তিনি বলেন, কার কাছ থেকে কত টাকা খেয়ে এই প্রশ্ন করেছেন। আর ওই সাংবাদিকের নাম জেনে তাকে চিনে রাখার কথাও বলেন।
এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খামোশ বললেই মানুষের মুখ খামোশ হবে না। তাদের কাছে আমার প্রশ্ন যারা এত বড় অপরাধ করলো আর যে পাকিস্তানি বাহিনীকে আমরা পরাজিত করলাম তাদের এই দোসরদের যখন ধানের শীষে মনোনয়ন দেয়া হলো আর এই ধানের শীষ নিয়ে যারা আমাদের সঙ্গে ছিল তারা একই সঙ্গে কীভাবে নির্বাচন করবে?
তিনি বলেন, এ প্রশ্নের উত্তর তারা জাতির কাছে দিতে পারবে কি না? তবে হ্যাঁ তাদের লজ্জা একটু কম লাগে বলেই সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে খামোশ বলতে পারে।’ বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট যুদ্ধাপরাধী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারীর স্বজন, বাংলা ভাই ও জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষকদের মনোনয়ন দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।
তিনি আরো বলেন, ড. কামাল, সুলতান মনসুর, কাদের সিদ্দিকী, মান্নার এত আবেগ দিয়ে জ্ঞানগর্ভ লিখা এত বিবেক! কোথায় গেল সেই বিবেক? ওই ধানের শীষে তারা আজকে নির্বাচন করছে। রাজনীতিকে কোথায় নামিয়েছে? তারা যদি ক্ষমতায় যায় তাহলে দেশের ভাগ্যে কী ঘটবে সেটাই আমার প্রশ্ন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন,  ‘যুদ্ধাপরাধী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারীর স্বজনসহ বাংলা ভাই ও জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষকদের মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট।  মানবতাবিরোধী অপরাধে সাজাপ্রাপ্তদের পরিবারের সদস্যরাও মনোনয়ন পেয়েছেন। আমার প্রশ্ন, পাকিস্তানি বাহিনীর এই দোসরদের সঙ্গে তারা একসঙ্গে কীভাবে নির্বাচন করবেন? এ প্রশ্নের উত্তর তারা জাতির কাছে দিতে পারবে কি? আসলে তাদের লজ্জা একটু কম বলেই সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে খামোশ বলতে পারেন।  জনগণকে এদের বিষয়ে সচেতন হতে বলবো। এ অপরাধীরা যাতে ভোট না পায়।’
আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘আজকে ড. কামাল, সুলতান মনসুর, কাদের সিদ্দিকী, মান্না-তাদের এত আবেগ দিয়ে জ্ঞানগর্ভ লেখা এবং বিবেকের কথা বলেন এখন কোথায় গেলো সেই বিবেক? ওই ধানের শীষে তার আজকে নির্বাচন করছে। রাজনীতিকে কোথায় নামিয়েছে? তারা যদি ক্ষমতা যায় তাহলে দেশের ভাগ্যে কী ঘটবে সেটাই আমার প্রশ্ন?

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ