বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০
Online Edition

আবারও একদফা বাড়লো বিজিএমইএ পর্ষদের মেয়াদ

স্টাফ রিপোর্টার: দুই দফায় দেড় বছর বাড়ানোর পর তৈরি পোশাক উৎপাদক ও রফতানিকারক ব্যবসায়ীদের সংগঠনের (বিজিএমইএ) বর্তমান পর্ষদের মেয়াদ আরও এক মাস বাড়িয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। বিজিএমইএর নেতৃত্ব নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে দুটি বড় পক্ষ সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম। উভয় পক্ষের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী, বিজিএমইএর পরবর্তী সভাপতি হবে ফোরাম থেকে। কিন্তু ভোটে নয়, সমঝোতার ভিত্তিতে দুই বছরের জন্য পদ পেয়ে সাড়ে তিন বছর দায়িত্ব পালন করছে বর্তমান পর্ষদ। এবার দিয়ে তিন দফা সময় বাড়ানো হলো।

বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে। নির্দেশনায় বলা হয়, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর যাতে নির্বাচন ও নির্বাচনী আপিল বোর্ড গঠন করে বিজিএমইএ সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করতে পারে তাই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, বিজিএমইএর সদস্যদের ভোটে নয়, সমঝোতার ভিত্তিতে দুই বছরের জন্য পদ পেয়ে সাড়ে তিন বছর দায়িত্ব পালন করছে বর্তমান পর্ষদ। নতুন করে আবারও ক্ষমতার মেয়াদ বাড়ানোর জোর চেষ্টা চালান বিজিএমইএর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান।

বিজিএমইএর বর্তমান পর্ষদের বাড়তি মেয়াদ শেষ হবে আগামী মার্চে। এ জন্য ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন ও নির্বাচনী আপিল বোর্ড গঠন করার কথা। তবে সেটি না করে নতুন করে এক বছর মেয়াদ বাড়ানোর জন্য সরকারের উচ্চপর্যায়ে দৌড়ঝাঁপের পাশাপাশি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদনও করেন সিদ্দিকুর রহমান। নতুন করে আবার এক মাস সময় বাড়ানোর কারণে বর্তমান পর্ষদের মেয়াদ শেষ হবে আগামী এপ্রিলে। এ জন্য আগামী ২২ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচন ও নির্বাচনী আপিল বোর্ড গঠন করতে হবে।

আবেদনের প্রেক্ষিতেই বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় একমাস সময় বাড়িয়েছে। বিজিএমইএর একেকটি কমিটির মেয়াদ সাধারণত দুই বছর হয়। তবে বর্তমান সভাপতি নানা অজুহাত দেখিয়ে পর্ষদের মেয়াদ ইতিমধ্যে দুই দফায় দেড় বছর বাড়িয়েছেন। এবার দিয়ে তিন দফা সময় বাড়ানো হলো।

বিজিএমইএর নেতৃত্ব নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে দুটি বড় পক্ষ সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম। উভয় পক্ষের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী, বিজিএমইএর পরবর্তী সভাপতি হবে ফোরাম থেকে। বর্তমান সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানের মেয়াদ বৃদ্ধির তৎপরতা জানতে পেরে গণ সপ্তাহে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের কাছে নালিশ জানান বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি ও ফোরাম নেতা আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী পারভেজ, মোহাম্মদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হকসহ সাতজন। তারা মন্ত্রীকে বলেন, সভাপতি নিজের মেয়াদ বাড়ানোর যে চেষ্টা করছেন, তা বিজিএমইএর সদস্যরা পছন্দ করছেন না।

ফোরাম নেতারা সর্বশেষ গণ মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়ে তাদের আপত্তি জানান। তারা চিঠিতে নতুন করে মেয়াদ বৃদ্ধি না করে বর্তমান পর্ষদকে অনতিবিলম্বে নির্বাচন ও আপিল বোর্ড গঠন করে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার নির্দেশ দিতে মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ