শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

স্কুলের প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

নীলফামারী সংবাদদাতা, ৯ ডিসেম্বর: নীলফামারীর ডোমার উপজেলা শহরের একটি বাড়ীতে অবৈধ দেহ ব্যবসা করার অভিযোগে স্কুল শিক্ষক খদ্দেরসহ ৪ নারীকে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
জানা যায়, ডোমার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কলেজপাড়া গ্রামের এলজিইডি নর্দান বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ডেপলভমেন্ট প্রোগ্রামে কর্মরত মৃত গিরিশ চন্দ্র সেনের ছেলে সুশীল কুমার রায়ের বাড়ীতে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন এলাকা থেকে নারী এনে দেহ ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পুলিশ ওই বাড়ীতে হানা দিয়ে বাড়ীর মালিক সুশিল কুমার রায়ের স্ত্রী পুস্প রানী সেন (৩৬), খদ্দের মৌজা পাঙ্গা পন্ডিতপাড়া গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় শান্তি নিকেতন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতাউর রহমান ভুট্ট, দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর চৌমুহনী ভুজারীপাড়া গ্রামের ছমির উদ্দিনের স্ত্রী সুমি বেগম (২৬), একই জেলার পুলহাট মিস্ত্রিপাড়া গ্রামের আব্দুল মালেকের স্ত্রী মুক্তা বেগম (২৩) ও সৈয়দপুর উপজেলার নিমবাগান এলাকার সোহাগের স্ত্রী তৃপ্তি বেগম (২৫) কে আটক করে ডোমার থানায় নিয়ে আসে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ আইনের ৩৪/৭ উপধারায় ডোমার থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং-৬৫। মামলা দায়েরের পর আটককৃতদের জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয় পুলিশ। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডোমার থানার এসআই আবু তালেব আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ