রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

শরীয়তপুরে পদ্মা নদীর ডানতীর রক্ষা বাঁধ প্রকল্পের উদ্বোধন

শরীয়তপুর সংবাদদাতা : শরীয়তপুরের নড়িয়া ও জাজিরা উপজেলায় পদ্মা নদীর ভাঙ্গন রোধে পদ্মার ডানতীর রক্ষা বাঁধ প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। গত রোববার দুপুরে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে এ প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন করেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার। এসময় তার সাথে ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহা পরিচালক মোঃ মাহফুজুর রহমান, নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা ইয়াসমিনসহ স্থানীয় প্রশাসন ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
স্থানীয় ও শরীয়তপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানাগেছে, এ বছর বর্ষা মৌসুমে পদ্মার ভয়াবহ ভাঙ্গনে ঐতিহ্যবাহী মূলফৎগঞ্জ বাজারের ২ শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সরকারী বে-সরকারী অফিস, নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ফসলী জমি, নড়িয়া পৌরসভা ও কেদারপুর ইউনিয়নের ৫ হাজার ৮১ পরিবারের বাড়ীঘর নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এ ছাড়াও জাজিরা উপজেলার বিলাশপুর ও কুন্ডেরচর ইউনিয়নের শত শত পরিবারের ঘরবাড়ী বিলীন হয়। এ ভয়াবহ ভাঙ্গন রোধে সরকার পদ্মা নদীর দক্ষিণ (ডান) তীর রক্ষা বাঁধ প্রকল্প গ্রহণ করে। এরপর গত ২ জানুয়ারী ৮.৯ কি.মি. তীর রক্ষা বাঁধ নির্মাণের জন্য ১ হাজার ৯৭ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়ে তা একনেকের বৈঠকে পাস করে। এ প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করা হয়। ২০২১ সালে প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শরীয়তপুর-২ আসনের আওয়ামলীগের মনোনিত প্রার্থী একে এম এনামুল হক শামিম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আসন্ন নির্বাচনে শত ব্যস্ততার মাঝেও তিনি নড়িয়া ও জাজিরার মানুষকে ভোলেননি। তিনি পদ্মার ডানতীর রক্ষা বাঁধের সাথে আরো ৫০ কোটি টাকা যোগ করে নড়িয়া উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরআত্রা ও নওয়াপাড়া ইউনিয়ন রক্ষার জন্য বরাদ্দ দিয়েছে। এ কাজটিও একযোগেই করা হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার বলেন, কাজ শুরু হওয়ার ফলে আমরা আশা করছি আগামী বর্ষা মৌসুমে এঅঞ্চলের লোক ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নির্দেশে অগ্রগামী তালিকায় রেখে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ