রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

রাজশাহীতে অন্য থানার পুরনো মামলায় ২০ দলের প্রার্থী পুনরায় গ্রেফতার

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের বিএনপি তথা ২০ দলের প্রার্থী কারাবন্দী আবু সাঈদ চাঁদকে অন্য থানায় দায়েরকৃত একটি মামলায় আবারো গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। গত রোববার বাগমারা থানায় পুলিশের দায়ের করা পুরনো একটি নাশকতার মামলায় তাঁকে জেল থেকে বের হওয়ার মুহূর্তে গ্রেফতার দেখানো হয়। যদিও এই মামলায় তাঁর নাম ছিলো না। এর আগে দায়ের করা মোট ২১টি মামলার ১৯টিতেই তাঁর জামিন রয়েছে।
 জেলার বাগমারা থানা সূত্রে জানা যায়, গত ৩ আগস্ট বাগমারা থানায় এসআই আতাউর রহমান নাশকতার একটি মামলা দায়ের করেন। তখন এই মামলার এজাহারে আবু সাঈদ চাঁদের নাম ছিলো না। কিন্তু গত রোববার আবু সাঈদকে ওই মামলাতেই গ্রেফতার দেখানো হয়। আবু সাঈদের আইনজীবী জহুরুল আলম বলেন, একটি মামলায় জামিন পেয়ে যখন তিনি জেল থেকে বের হবেন, ঠিক তখনই তাঁকে আরেকটি মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলো। হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগের আদেশ রয়েছে, তাঁকে হয়রানিমূলক মামলায় গ্রেফতার করা যাবে না। তারপরেও গত রোববার তাঁকে বাগমারা থানার একটি মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তিনি মামলার এজাহারনামীয় আসামি নন। এর আগে গত ১৯ নভেম্বর বাঘা থানার নাশকতার একটি পুরোনো মামলায় একইভাবে তাঁকে গ্রেফতার দেখানো হয়। ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আগে তাঁর বিরুদ্ধে ১৫টি মামলা বিচারাধীন ছিল। পরে তিনি কারাগারে থাকা অবস্থায় বিভিন্ন থানায় আরো পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। গত ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে চারঘাট উপজেলায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান থেকে আবু সাঈদ চাঁদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন এবং রাজশাহীর চারঘাট-বাঘা আসন থেকে এমপি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। বিএনপি’র চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও রাজশাহী সদর আসনের প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু অভিযোগ করেন, চাঁদের প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের ‘নিদেশে’ আবু সাঈদ চাঁদকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ