রবিবার ২৬ জুন ২০২২
Online Edition

কুমিল্লা-১১ আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেন ডাঃ তাহের

কুমিল্লা অফিস: কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম) আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের লক্ষ্যে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন চৌদ্দগ্রাম থেকে নির্বাচিত সাবেক এমপি ও  বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর  কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য  এবং জামায়াতের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ সৈয়দ আবদুল্লাহ মোঃ তাহের।
গত বুধবার বিকেলে তাঁর পক্ষে কুমিল্লা জেলা সহকারী রিটানিং অফিসার ও এডিসি রাজস্ব মোঃ আসাদুজ্জামানের হাত থেকে মনোনয়ন ফরম নেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি এডভোকেট মোঃ শাহজাহান।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা বারের বিশিষ্ট আইনজীবী  এডভোকেট শহিদ উল্যাহ, এড ইয়াকুব আলী চৌধুরী, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর মাহফুজুর রহমান, উপজেলা জামায়াত নেতা বেলাল হোসেন, এডভোকেট বদিউল আলম সুজন, এডভোকেট এরশাদ উল্যাহসহ আইনজীবীদের একটি প্যানেল।
জানা যায়, একাদশ  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন  সাবেক সংসদ সদস্য ডাঃ সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের। চৌদ্দগ্রামবাসীর জননেতা  ডাঃ তাহের ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।  ডাঃ  সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের কলেজ জীবন থেকে ছাত্র রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন। তিনি  ১৯৮৫-৮৬ এবং ১৯৮৬-৮৭ সেশনে  ইসলামী ছাত্র শিবিরের  কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসাবে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেন।
তিনি ১৯৮৮-৯২ পর্যন্ত ইন্টারন্যাশনাল ইসলামী ফেডারেশন অফ স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশন (আইআইএফএসও) এর এশিয়ার ডিরেক্টর নির্বাচিত হন। পরে তিনি ১৯৯২-১৯৯৫ পর্যন্ত আইআইএফএসও এর নির্বাচিত ওয়ার্ল্ড কমিটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একই সময়ে দক্ষিণ এশিয়ার ওয়ামী (বিশ্বব্যাপী মুসলমান যুব পরিষদ) এর পরিচালক ছিলেন। ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর রিলিফ এন্ড রিহ্যাবিলিয়েশন এর ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এবং ইন্দোনিশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট ডঃ হাবিবির নেতৃত্বে গঠিত  ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর সাইন্স এন্ড এশিয়া রিজিওনাল পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
 ডাঃ  তাহের দৈনিক সংগ্রাকে জানান, চৌদ্দগ্রামের জনগণ বর্তমান সরকারের হামলা, মামলা, নৈরাজ্য জুলুম নির্যাতন থেকে বাঁচতে চায়। সুষ্ঠু ভোট হলে এই আসনের প্রায় ৮০ শতাংশ ভোট পেয়ে আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবো ইনশাআল্লাহ। বর্তমান সরকারের  আমলে আমি সাড়ে তিন বছর কারাগারে ছিলাম। সম্প্রতি আমার নামে ১৬টি গায়েবি মামলা হয়েছে। আমার আসনের একটি পৌরসভা ও ১৩টি ইউনিয়নে আমার রয়েছে বিশাল কর্মী বাহিনী। প্রতিটি কেন্দ্র কমিটি গঠন করা হয়েছে। আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে  চৌদ্দগ্রামের শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা নির্মাণ করবো। যুবকদের মাদকের ভয়াবহতা থেকে ফিরিয়ে এনে আদর্শ সু- নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবো। চৌদ্দগ্রামের প্রতিটি সড়ক পাকা সড়কে উন্নীত এবং শতভাগ বিদ্যুতায়িত করা হবে।
ডাঃ তাহের  ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রি  লাভ করেন। তিনি ১৯৮০-১৯৮২ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ এর নির্বাচিত জিএস ছিলেন।
তিনি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সৈয়দ পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা মাওলানা সৈয়দ মাজহারুল হক এবং  তার মা, আকসির-ই-জাহান চৌধুরানী বিশিষ্ট ব্যক্তি ছিলেন। তিনি বিশ্বের ৯১টি দেশ সফর করেন।
মনোনয়ন ফরম  সংগ্রহ শেষে সাংবাদিকদের  দক্ষিণ জেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি  এডভোকেট মোঃ শাহজাহান বলেন, সুষ্ঠুভাবে ভোটের পরিবেশ পেলে জনগণ ব্যালট বিপ্লবের মাধ্যমে ডাঃ তাহেরকে ভোট দিয়ে বিজয়ী  করবে, ইনশাআল্লাহ।
দিনাজপুরের ৩টি আসনে
৩ জামায়াত নেতার মনোনয়ন ফরম উত্তোলন
দিনাজপুর অফিস : দিনাজপুরে ৩টি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম উত্তোলন করেছেন ৩ জামায়াত নেতা। দিনাজপুরের ৬টি আসনের মধ্যে জামায়াত প্রার্থীরা মনোনয়ন ফরম উত্তোলন করেছেন দিনাজপুর-১, ৪ ও ৬ আসনে। এর মধ্যে দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনে বীরগঞ্জ পৌর মেয়র মাওলানা হানিফ, দিনাজপুর-৪ (চিরিরবন্দর-খানসামা) আসনে চিরিরবন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আফতাবউদ্দীন মোল্লা ও দিনাজপুর-৬ (বিরামপুর-হাকিমপুর-নবাবগঞ্জ-ঘোড়াঘাট) আসনে দিনাজপুর জেলা (দক্ষিণ) জামায়াতের আমীর মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম।
গতকাল বুধবার সকালে বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়ামিন হোসেনের নিকট থেকে দিনাজপুর-১ আসনের মনোনয়ন উত্তোলন করেন বীরগঞ্জ পৌর মেয়র মাওলানা মোঃ হানিফ। এ সময় তাঁর সাথে ছিলেন উপজেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি রাশেদুন্নবী বাবু, শিক্ষাবিদ প্রফেসর মাহমুদুন্নবী লিটন, পৌর কাউন্সিলর আহমদ সেক্রেটারি, ফারুক হোসেন, মেহেদী হাসান ও ফুলেজা বেগম। একইভাবে দিনাজপুর-৪ আসনে চিরিরবন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জামায়াতে ইসলামীর রংপুর অঞ্চলের অন্যতম টীম সদস্য আলহাজ্ব আফতাব উদ্দীন মোল্লার পক্ষে মনোনয়ন সংগ্রহ করা হয়। দিনাজপুর-৬ আসনে জামায়াত নেতা মোঃ আনোয়ারুল ইসলামের পক্ষে বিরামপুর উপজেলা নির্বাচনী অফিস হতে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন নবাবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ নূরে আলম সিদ্দীকি, বিরামপুর বণিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা আশরাফুল ইসলাম ও বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ মোঃ আতিয়ার রহমান এমবিবিএস প্রমুখ। জামায়াত নেতারা ইতোমধ্যে তাদের প্রচারাভিযান জোরেশোরে শুরু করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ