বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ফেডারেশন কাপ ফুটবলের সেমিফাইনালে বসুন্ধরা কিংস 

স্পোর্টস রিপোর্টার: ফেডারেশন কাপ ফুটবলের সেমিফাইনালে উঠেছে প্রিমিয়ারের নবাগত দল বসুন্ধরা কিংস। গতকাল রোববার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্টিত কোয়ার্টার ফাইনালে তারা ৫-১ গোলের সহজ পার্থক্যে টিম বিজেএমসিকে হারিয়েছে। এদিন ম্যাচ জয়ের নায়ক ছিলেন বসুন্ধরা কিংসের বিশ্বকাপ তারকা কলিনড্রেস। কোস্টারিকার জাতীয় দলের এই তারকা ফুটবলার হ্যাটট্রিক করেন। রাশিয়া বিশ্বকাপে কোস্টারিকার হয়ে মাঠ মাতানো তারকা ড্যানিয়েল কলিনড্রেসের দুর্দান্ত পারফরমেন্স দেখলেন এবার ঢাকার দর্শকরা। বাকি দু’গোল করেন দু’বদলি ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ ও মতিন মিয়া। 

বিজেএমসির একমাত্র গোলদাতা নাইজিরিয়ান মিডফিল্ডার স্যামসন ইলিয়াসু। ম্যাচের শুরু থেকেই বিজেএমসির দূর্গে আক্রমণের জোয়ার বাইয়ে দেয় নবাগত বসুন্ধরা। ফলস্বরূপ দ্বিতীয় মিনিটেই আসে কাঙ্খিত গোল। বক্সের ভেতরে বাঁ প্রান্ত দিয়ে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের ক্রস বিজেএমসির ডিফেন্ডার ঠিকমতো ফেরাতে ব্যর্থ হন। বল চলে যায় ড্যানিয়েল কলিনড্রেসের পায়ে। ঠান্ডা মাথায় তার নেওয়া শট আশ্রয় নেয় বিজেএমসির জালে (১-০)। মিনিট সাতেক পর ফের কলিনড্রেস ঝলক। বিজেএমসির ডিফেন্ডারের ভুলে ফাঁকায় বল পেয়ে গোল করেন কোস্টারিকান এ ফরোয়ার্ড। প্রায় মাঝমাঠ থেকে বাড়ানো বল বিজেএমসির ডিফেন্ডার ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে প্লেসিং শটে জালে জড়ান কলিনড্রেস (২-০)। ১৫ মিনিটেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কোস্টারিকার হয়ে বিশ্বকাপ খেলা তারকা কলিনড্রেস। সংঘবদ্ধ আক্রমণে মাসুক মিয়া জনি আলতো হেড করে সামনে বল বাড়ান। বিজেএমসির দু’জন ডিফেন্ডার ও গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে দৃষ্টিনন্দন প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন বসুন্ধরার অধিনায়ক কলিনড্রেস (৩-০)। ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়া বসুন্ধরা প্রথমার্ধের বাকি সময়েও বলের দখল রেখে খেলে। বেশ কয়েকটি সুযোগও সৃষ্টি করে। কিন্তু গোলকিপার আবুল কাশেম মিলনের দৃঢ়তায় আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি অস্কার উইলিয়ানের শিষ্যরা। 

বিরতির পরও একতরফা প্রাধান্য বিস্তার করে খেলতে থাকেন কলিনড্রেস, জনি, ইমন মাহমুদরা। কিন্তু কাঙ্খিত গোলের দেখা পাচ্ছিলেন না। অবশেষে ৭০ মিনিটে চার নম্বর গোলের দেখা পায় বসুন্ধরা। সংঘবদ্ধ আক্রমণে বাঁপ্রান্ত দিয়ে ক্ষিপ্রগতিতে বিজেএমসির অর্ধে ঢুকে গোলমুখে ক্রস দেন মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ইব্রাহিম। চলতি বলে বিজেএমসির দু’ডিফেন্ডারের মাঝখান থেকে পা ছুয়ে দৃষ্টিনন্দন গোল করেন বদলি হিসেবে মাঠে নামা ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ (৪-০)। ৭৯ মিনিটে অসাধারণ বোঝাপড়ায় পঞ্চম গোল আদায় করে নেয় বসুন্ধরা। মাঝমাঠ থেকে কলিনড্রেস ও ইমন মাহমুদ বল দেয়ানেয়া করে বাঁপ্রান্তে দেন ইব্রাহিমকে। এরপর দুরন্ত গতিতে এগিয়ে বক্সে মাপা ক্রস দেন এই মিডফিল্ডার। তা থেকে চোখ ধাঁধানো হেডে বিজেএমসির জাল কাপান আরেক বদলি ফরোয়ার্ড মতিন মিয়া (৫-০)। মিনিট সাতেক পর এক গোল শোধ দেয় বিজেএমসি। পেনাল্টি থেকে দলের হয়ে সাত্বনার একমাত্র গোল করেন বিজেএমসির নাইজিরিয়ান মিডফিল্ডার ও অধিনায়ক স্যামসন ইলিয়াসু (৫-১)। ফেডারেশন কাপের সেমিফাইনালে উঠেছে বসুন্ধরা কিংস, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। সাতদিন বিরতির পর দুটি সেমিফাইনাল অনুষ্টিত হবে আগামী ১৯ ও ২০ নবেম্বর। আর ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্টিত হবে ২৩ নবেম্বর। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ