মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

দৈনিক আজাদীতে প্রকাশিত সংবাদে মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর প্রতিবাদ

গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদী পত্রিকার শেষ পাতা (১২ পৃষ্ঠায়) ৫ম ও ৬ষ্ঠ কলামে “নির্বাচন ঘিরে রণকৌশলে জামায়াত-শিবির“ শীর্ষক সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও চট্টগ্রাম মহানগরী জামায়াতের আমীর মাওলানা মুহাম্মদ শাহজাহান ও কেন্দ্রীয় মজলিশে শূরার সদস্য ও মহানগরী জামায়াতের সেক্রেটারী মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম এক প্রতিবাদ লিপি প্রদান করেন।

প্রতিবাদ লিপিতে চট্টগ্রাম মহানগরী জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, নির্বাচেনর তফসিল ঘোষণার পর জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরাই চরম বিশৃংখলার সৃষ্টি করতে পারে। এমন বক্তব্য মিথ্যা,বানোয়াট ও সন্দেহভাজন। এক শ্রেণীর অতিউৎসাহী পুলিশ অফিসার গত সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাস থেকেই পুরো চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন থানা থেকে এবং কেন্দ্রীয় ও চট্টগ্রাম মহানগরীর নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার করে মিথ্যা অভিযোগে গায়েবী মামলায় সম্পৃক্ত করেছে।

জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার একদিকে সকল দলের অংশ গ্রহনে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের কথা বলে অপর দিকে চট্টগ্রামসহ সারাদেশে জামায়াত-শিবিরসহ বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের দমন-পীড়ন ও গণগ্রেফতার চালাচ্ছে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হয় পুলিশ পেশাদারিত্বের পরিচয় দেওয়ার চাইতে সরকারের আজ্ঞাবহ হিসাবে বেশী নিষ্ঠাবান। চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন থানা থেকে গ্রেফতারকৃত নিরীহ নেতা-কর্মীদের পুলিশ ঘুম থেকে তুলে পুলিশের দেওয়া বিষ্ফোরক দিয়ে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দিচ্ছেন।

নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন, জামায়াত-শিবির নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী। জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসে বিশ্বাস করে না। জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবির আর্দশবাদী সংগঠন।

পত্রিকায় সংবাদে আরো বলা হয়, নির্বাচন কালীন সরকার গঠিত হলে কোনো ইস্যুকে কেন্দ্র করে জঙ্গী স্টাইলে মাঠে নেমে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এটা সম্পূর্ণ কাল্পনিক ও ভিত্তিহীন বক্তব্য। জামায়াত-শিবির জঙ্গী স্টাইলে কর্মসূচী বাস্তবায়ন করে না। জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, জনৈক পুলিশ কর্মকর্তা বক্তব্যে জানান, গ্রেফতারকৃত নেতা-কর্মীরা নাশকতার উদ্দেশ্যে নিজেদের বাসায় বিষ্ফোরক দ্রব্য মজুদ করেছে। এই কর্মকর্তার বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য আওয়ামীলীগের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে এক শ্রেণীর পুলিশ কর্মকর্তারা।

জামায়াত নেতৃবৃন্দ আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু করা এবং সকল দলের অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করার জন্য নির্বাচনী পরিবেশ তৈরী, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী এবং নির্বাচন থেকে জামায়াতকে দূরে রাখার ষড়যন্ত্র বন্ধ এবং গ্রেফতারকৃত জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীদের মুক্তি দাবী ও জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন ও অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ