শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

কেরানীগঞ্জে দুই গ্রামবাসীর  সংঘর্ষে  নিহত ১জন ॥ আহত ১১

 

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা)প্রতিনিধি : ঢাকার কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন নিহত এবং কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। নিহত ব্যাক্তির নাম মোঃ তানভীর ভূইয়া(৪৭)। আহতদের মধ্যে মোঃ অলি   জহুরুল্লাহ, হাবিবুর রহমান হাবিব,সালমান, রিফাত, খোকন ,মজিবর,জাহিদ, শাহনেয়াজ ও আলিমুল্লাহর নাম জানা গেছে। আহতদের স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কলাকান্দি এলাকার  প্রবীন আ’লীগ নেতা বারেক মাদবর জানান, ৭ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে আব্দুল্লহপুর বাজারে রিকশা ও মোটর সাইকেলের সংঘর্ষের একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কড়েরগাও গ্রামের আশকর মেম্বর গ্রুপের সাথে কলাকান্দি গ্রামের লোকজনদের সাথে ঝগরা বাঁধে। এই ঘটনার মিমাংসার জন্য গত বুধবার দুপুরে কলাকান্দি গ্রামে তেঘরিয়া ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আ’লীগের অফিসে বিচার হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিচারে না এসে আশকর মেম্বরের নেতৃত্বে কড়েরগাও গ্রামের শতশত লোকজন অতর্কিতভাবে কলাকান্দি বাজার ও আ’লীগ অফিসে হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা বৃষ্টিরমতো ইটপাটখিল ও টেটা –বল্লম ছুড়তে থাকে। একপর্যায়ে তাদের সাথে কলাকান্দি গ্রামের লোকজনের  সংঘর্ষ বেধে যায়। এসময় আশকর মেম্বরের লোকজনদের ছোড়া ইটপাটখিল ও টেটার আঘাতে তার চাচাত ভাই তানভীর ভ’ইয়াসহ ১১জন গুরুতর আহত হয়। আহতদের স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তানভীর ভ’ইয়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানে মারা যায়। তেঘরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ জজ মিয়া বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে দ্রুত ছুটে আসি এবং দুইপক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করি। এদিকে  কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রামানন্দ সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এলাকায় এখন থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে ।এব্যাপারে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামান জানান, এলাকায় শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার জন্য ব্যাপক সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। থানায় মামলা হলে আমরা আইনগত ভাবে ব্যবস্থা নিব।

সার ও বীজ বিতরন : কেরানীগঞ্জে উপজেলা কৃষি বাস্তবায়ন ও  উপজেলা কৃষি অফিস কর্তৃক মৌসুমী প্রনোদনা কর্মসূচির আওতায়   ১৫৫৫ জন কৃষককে মাঝে বিনা মূল্যে  সার ওবীজ বিতরন করা হয়েছে ।

 ০৭ নভেম্বর ২০১৮ রোজ বুধবার সকাল ১১ টায়, কেরানীগঞ্জ উপজেলা অডিটোরিয়াম হল রুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার  শাহে এলিদ মাইনুল আমিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় । এসময় কৃষকদের  উদ্দেশ্যে  উদ্ভোধনী বক্তব্যদেন  কেরানীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার ফখরুল আলম । তিনি বলেন,আপনাদের কঠোর পরিশ্রমে  আমাদের খাদ্য ঘারতি পূরন করতে সক্ষম হয়েছি ।এ সার বীজ বণ্যা কবলিত কৃষকদের জন্য দিলে ও আমাদের সাধারন কৃষকে কথা চিন্তাকরে অপনাদের বিমুখ করেননি  বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব বলেই আজ আমরা এবীজ ও সারের আওতায় এসেছি। এখন আপনাদের কাজের মাধ্যমে এর সুফল আর্জন করব।আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প অফিসার মোঃ শহিদুল ইসলাম,মৎস্য সিনিয়র অফিসার ড. মোঃ খালেদ কনক,উপজেলা প্রানী সম্পদ অফিসার ডা. মোঃ জহির উদ্দিন ।পরে  মৌসুমী  প্রনোদনার আওতায়  ১বিঘা ৩৩ শতাংশ জমি চাষের জন্য  ১১০০ জন ক্ষদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে প্রতি জনকে  ১ কেজি সরিষার বীজ ২ কেজি ডিএপি সার ,১০কেজি এমওপি সার , ৩০০জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে প্রতিজনকে ২কেজি ভুট্টা বীজ ২০ কেজি ডিএপি সার ১ কেজি এমওপি সার , ১৫০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে প্রতিজনকে ৫কেজি বোরো  বীজ ২০ কেজি ডিএপি সার ১০ কেজি এমওপি সার , ৫জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে প্রতিজনকে বিটি বেগুন  বীজ ২০ কেজি ডিএপি সার ১০কেজি এমওপি সার বিনা মূল্যে বিতরন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ