সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বস্তুনিষ্ঠতা ও পেশাদারিত্বে সংগ্রাম আপোসহীন -আবুল আসাদ

গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে দৈনিক সংগ্রাম আয়োজিত পেশাগত মানোন্নয়ন ও করণীয় বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদ -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদ বলেছেন, সংবাদপত্র হচ্ছে গণমানুষের কাছে পৌঁছার একটি মাধ্যম। আমরা এর মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ, শত্রু-মিত্র সবার কাছেই পৌঁছাতে চাই। তিনি বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যেই দৈনিক সংগ্রাম এগিয়ে চলছে। দেশ, জনগণ ও ইসলামের পক্ষে কলমের লড়াই চালিয়ে যাবে। তিনি উল্লেখ করেন, বস্তুনিষ্ঠতা ও পেশাদারিত্বে সংগ্রাম আপোসহীন।
গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাব কনফারেন্স লাউঞ্জে পেশাগত মানোন্নয়ন ও করণীয় বিষয়ে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সভায় সংগ্রামের ব্যুরো প্রধান ও জেলা সংবাদদাতারা অংশগ্রহণ করেন। সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে’র সভাপতি, সংগ্রামের বিশেষ প্রতিনিধি ও চীফ রিপোর্টার রুহুল আমিন গাজী, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম। সভা পরিচালনা করেন সংগ্রামের মহাব্যবস্থাপক আবুল হোসাইন চৌধুরী। দৈনিক সংগ্রামের ব্যুরো প্রধান ও জেলা সংবাদদাতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রামের ই. এম বেলাল, খুলনার আবদুর রাজ্জাক রানা, সিলেটের কবির আহমেদ, বরিশালের শাহে আলম, রংপুরের মো. নুরুজ্জামান, কুমিল্লার মো. রাসেল, কক্সবাজারের কামাল হোসেন আজাদ, দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রতিনিধি অনক আলী শাহেদী, শরিয়তপুরের এ.কে.এম মকবুল হোসেন, দিনাজপুরের কামরুজ্জামান, গাজীপুরের রেজাউল বারী বাবুল, কুড়িগ্রামের মোস্তাফিজুর রহমান, নেত্রকোনার দিলওয়ার খান, বান্দরবানের আবুল বশর ছিদ্দিকী, গাইবান্ধার এম জুবায়ের আলী, রাজশাহী অফিসের সাদিকুল ইসলাম স্বপন, জয়পুরহাটের মাশরেকুল আলম, সুনামগঞ্জের মহসিন রেজা মানিক, বগুড়ার মোস্তফা মোঘল, পাবনার কামরুল ইসলাম, টাঙ্গাইলের এসএম মনিরুজ্জামান, ময়মনসিংহের ইমরান কবির, ঝালকাঠির আলী হায়দার তালুকদার, বাহ্মানবাড়িয়ার আকরাম হোসেন, নওগাঁর আহাদ আলী, মেহেরপুরের আকতারুজ্জামান, সাতক্ষীরার আবু সাঈদ বিশ^াস, কুষ্টিয়ার খালেদ হাসান সেপাই, চুয়াডাঙ্গার এফ এ আলমগীর এবং টাঙ্গাইলের বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি সরকার কবির উদ্দিন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাব এডিটর শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, আশরাফুল ইসলাম, মফস্বল বিভাগের আহসান হাবিব বুলবুল, শরীফ আবদুল গোফরান প্রমুখ।
সভাপতির বক্তব্যে আবুল আসাদ বলেন, আমাদের সংবাদদাতারা শুধু ভালো সাংবাদিকই নন, তারা ভালো বক্তাও বটে। আবার ভালো বক্তাই নন, সাহসীও বটে। তিনি বলেন, দৈনিক সংগ্রামে সব দল মতের সংবাদই ছাপা হয়। যে নিউজ যতটুকু কভারেজ প্রাপ্য আমরা সেটাই দেই। অন্যরা যে নিউজ ব্লাকআউট করে আমরা সেটাও যথার্থভাবে প্রকাশ করি। তিনি উল্লেখ করেন, বস্তুনিষ্ঠতা ও পেশাদারিত্বে সংগ্রাম আপোসহীন।
সংগ্রাম সম্পাদক বলেন, সংবাদপত্র হচ্ছে গণমানুষের কাছে পৌঁছার একটি মাধ্যম। আমরা এর মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ, শত্রু-মিত্র সবার কাছেই পৌঁছাতে চাই। তিনি বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যেই দৈনিক সংগ্রাম এগিয়ে চলছে। দেশ, জনগণ ও ইসলামের পক্ষে কলমের লড়াই চালিয়ে যাবে।
রুহুল আমিন গাজী বলেন, বাংলাদেশের একমাত্র পত্রিকা দৈনিক সংগ্রাম, যে পত্রিকায় সব দলের খবর নিরপেক্ষভাবে ছাপা হয়, কোন ধরনের মন্তব্য বা দলীয় দৃষ্টিভঙ্গি ছাড়াই।
শহিদুল ইসলাম বলেন, সংগ্রামের ঢাকা অফিস সূর্য ধরা হলে সংবাদদাতারাই সেই আলোর যোগানদাতা।
আবুল হোসাইন চৌধুরী বলেন, সবার পরামর্শ লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। আমরা সাধ্যমতো সমাধানের চেষ্টা করবো। তিনি আগামী ১৭ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে প্রকাশিত বিশেষ সংখ্যাগুলোর জন্য প্রত্যেককে যার যার অবস্থান থেকে ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ