মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও স্বাধীনতা রক্ষায় ৭ নবেম্বরের ভূমিকা অবিস্মরণীয় -মিয়া গোলাম পরওয়ার

শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেছেন, ১৯৭৫-এর ৭ নবেম্বর সৈনিক-জনতার ঐতিহাসিক বিপ্লবে আমাদের মাতৃভূমি প্রভাবমুক্ত হয়ে স্বাধীন অস্তিত্ব লাভ করে এবং বহুদলীয় গণতন্ত্রের পথচলা নিশ্চিত হয়। স্বদেশবাসীর জাগরিত দৈশিক চেতনায় পরাজিত হয় আধিপত্যবাদী শক্তির অশুভ ইচ্ছা। ১৯৭৫ সালের এ দিনে আধিপত্যবাদী শক্তির নীলনকশা প্রতিহত করে এদেশের বীর সৈনিক ও জনতা। সম্মিলিত প্রয়াসে জনগণ নতুন প্রত্যয়ে জেগে ওঠে। ৭ নবেম্বর বিপ্লবের সফলতার সিঁড়ি বেয়েই আমরা বহুদলীয় গনতন্ত্র এবং অর্থনৈতিক মুক্তির পথ পেয়েছি।
গতকাল বুধবার মহান বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন। কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খানের পরিচালনায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন,কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও নির্বাহী সদস্য গোলাম রাব্বানী,কেন্দ্রীয় সহ-সাধারন সম্পাদক লস্কর তসলিম, কেন্দ্রীয় সহ-সাধারন সম্পাদক আতিকুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ মনসুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হাসান রাজু, অফিস সম্পাদক আবুল হাশেম,সাবেক ছাত্র নেতা নুরুল আমীন প্রমুখ।
মিয়া গোলাম পরওয়ার আরো বলেন, এবারের দিবসটি এমন সময় পালন করা হচ্ছে, যখন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সহ বিরোধী জোটের নেতাকর্মীদের দেশব্যাপী আবারো গণগ্রেফতার চলছে, যখন প্রতিনিয়ত মানুষ খুন হচ্ছে, যখন কোথাও কারো জীবনের নিরাপত্তা নেই, যখন সন্তানহারা পিতা তার খুন হওয়া ছেলের বিচার প্রত্যাশাও করতে পারছে না, ঠিক এমন একটি বিভীষিকাময় সময়ে।
তিনি এই বিভীষিকাময় পরিস্থিতি থেকে শ্রমিক জনতাকে এক হয়ে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও স্বাধীনতা রক্ষায় ৭ নবেম্বরের ভুমিকায় এগিয়ে আসার আহবান জানান। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ