শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান গ্রেফতার হয়েছে। সোমবার বিকেল সোয়া ৫টায় শহরের চাষাঢ়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
নারায়ণগঞ্জ ডিবির পরিদর্শক এনামুল হক জানান, সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা রয়েছে। সেই মামলার ওয়ারেন্ট ইস্যুতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চাষাঢ়া থেকে বিকেলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে নারায়ণগঞ্জে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ২৪ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ওই মামলায় আটক জেলা বিএনপির সেক্রেটারি ও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদককে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
গত ৩১ অক্টোবর সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন জয়নাল আবেদীন।  মামলায় অভিযোগ বলা হয়েছে, মঙ্গলবার ৩০ অক্টোবর দুপুরে মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালামের অর্থায়নে বিএনপির নেতাকর্মীরা চাষাঢ়ায় সমবেত হয়ে গোপন বৈঠকের মাধ্যমে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র ও জননিরাপত্তা বিঘিœত করে ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জকে বিচ্ছিন্ন করার যড়যন্ত্র করছিল বিএনপির নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা পালিয়ে যায় এবং ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। ঘটনাস্থল থেকে দুটি পুরাতন ভাঙ্গা লাল কচটেপ মোড়ানো জর্দার কৌটা ও চারটি ইটের টুকরা জব্দ করা হয়েছে। ঘটনার সময়ে আটক জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ, বিএনপি নেতা নাজমুল হাসান, ইয়াছিন, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার দেখানো হয়।
মামলার অন্য আসামীরা হলেন মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, মহানগর বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম সজল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আবুল কাউসার আশা, মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাফিউদ্দিন রিয়াদ, বিএনপি নেতা এডভোকেট আনোয়ার প্রধান, এডভোকেট আব্দুল হামিদ খান ভাষানী, সাবেক কাউন্সিলর হাসান আহমেদ, মোয়াজ্জেম হোসেন মন্টিসহ অজ্ঞাত ৮ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ