শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

ইবির ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে অসঙ্গতি

ইবি সংবাদদাতা : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে অসঙ্গতি পাওয়া গেছে। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সি’ ইউনিটের পরীক্ষার উত্তরপত্রে ‘হিসাব বিজ্ঞান’ অংশে ‘ব্যবসায় শিক্ষা’ লেখা ছিল। ফলে প্রশ্নপত্রের নম্বর বিন্যাসের সাথে উত্তরপত্রের নম্বরের অমিল দেখা দেয়।
সূত্র মতে, সোমবার সকাল সাড়ে নয়টায় ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় উত্তরপত্রের ‘হিসাব বিজ্ঞান’ অংশে ‘ব্যবসায় শিক্ষা’ লেখা ছিল। ফলে প্রশ্নপত্রের নম্বরের সাথে (ওএমআর) উত্তরপত্রের নম্বরের অমিল দেখা দেয়। এতে বিপাকে পড়ে শিক্ষার্থীরা। প্রশ্নপত্রের হিসাব বিজ্ঞান অংশে ৪৬ থেকে ৬০ হিসেবে নম্বর সাজানো ছিল এবং একই অংশের উত্তরপত্রে ৩১ থেকে ৪৫ হিসেবে নম্বর দেয়া ছিল। একইভাবে ব্যবসায় শিক্ষা অংশে প্রশ্নপত্রে ৩১ থেকে ৪৫ হিসেবে নম্বর সাজানো ছিল এবং একই অংশের উত্তরপত্রে ৪৬ থেকে ৬০ হিসেবে নম্বর হিসেব দেয়া ছিল। এছাড়াও ২০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে ৬১ থেকে ৮০ এবং উত্তরপত্রে ১ থেকে ২০ হিসেবে নম্বর সাজানো ছিল। পরে ইউনিট কমিটির নির্দেশনায় বিষয়টি সংশোধণ করে পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।
পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত একাধিক শিক্ষক জানায়, প্রথমে ইউনিটের পক্ষ থেকে উত্তরপত্রের (ওএমআর) নম্বরকে ধরে পরীক্ষা গ্রহন করার নির্দেশ দেয়া হয়। এর দশ মিনিট পরে প্রশ্নপত্রের নম্বরকে ধরে পরীক্ষা গ্রহণের নির্দেশনা আসে। আমরা ওই নির্দেশ অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের জানিয়ে দেয়া হয়।’
কুষ্টিয়া থেকে পরীক্ষা দিতে আসা ভর্তিচ্ছু শিমু ও লুইসিয়া জানায়, প্রশ্নপত্রের নম্বর এবং উত্তর পত্রের নম্বরের কোন মিল ছিল না। প্রাথমিকভাবে উত্তরপত্রের নম্বর অনুযায়ী পরীক্ষা দিতে বলেন স্যাররা। কিছুক্ষণ পরে প্রশ্নপত্রের নম্বর অনুযায়ী নির্দেশ দেয়। এভাবে পরীক্ষা দিতে গিয়ে অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়তে হয়েছে। কোন নিয়ম মেনে পরীক্ষা দেব? জানিনা ফলাফল কি হবে।’
‘সি’ ইউনিট সমন্বয়কারী অধ্যাপক ড. অরবিন্দ শাহা বলেন,‘এটা টাইপিং মিসটেক ছিল। বিষয়টি জানার পর সমাধানের জন্য পরীক্ষকদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।’
এদিকে গতকাল রবিবার অনুষ্ঠিত ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষায় মীর মোশাররফ হোসেন একাডেমিক ভবনের ৩১৬, ৩১৭ সহ বেশ কয়েকটি কক্ষে শিক্ষার্থী হিসেবে অর্ধেক প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়। পরে প্রশ্ন সংকট পড়লে পুনরায় প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করে ইউনিট কমিটি।
ভর্তি পরীক্ষা চার শিফটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথম শিফট সকাল সাড়ে নয়টা থেকে সাড়ে দশটা, দ্বিতীয় শিফট সাড়ে বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা, তৃতীয় শিফট দুপুর দুইটা থেকে বিকাল তিনটা এবং চতুর্থ শিফট বিকাল চারটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত। গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে নয়টা থেকে সাড়ে দশটা পর্যন্ত দিনের প্রথম শিফটে থিওলোজি এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা এবং মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দিনের দ্বিতীয় শিফট, তৃতীয় শিফট এবং চতুর্থ শিফটে অনুষ্ঠিত হয়। আজ সোমবার প্রথম শিফটে ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের এবং দ্বিতীয়, এবং তৃতীয় শিফটে ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত ‘ডি’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। চতুর্থ শিফটে ‘ডি’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ