শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

গণজোয়ার ও গণপ্রতিরোধ শুরু হলে সকল নিপীড়ক খড়কুটোর মতো ভেসে যাবে -নূর হোসাইন কাসেমী

যুব জমিয়ত বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সাবেক সহসভাপতি মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েছ, সিলেট মহানগর যুব জমিয়তের প্রচার সম্পাদক হাফিজ মাহদি হাসান মিনহাজ এবং নেত্রকোণা জেলা যুব জমিয়ত নেতা মাওলানা জাকির হোসাইনকে গ্রেফতার করে আটক রাখার প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।
গতকাল  রোববার এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, যুব জমিয়তের এই তিন কর্মীকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে বিরোধী মত দমন ও রাজনৈতিক নিপীড়নের অংশ হিসেবে গ্রেফতার করে আটক রাখা হয়েছে। তিনি অবিলম্বে তাদের মুক্তি ও মিথ্যা মালা প্রত্যাহারের দাবী করেন।
জমিয়ত মহাসচিব বলেন, নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে বিরোধী দলসমূহের দাবির প্রতি জনগণের সর্বাত্মক সমর্থন দেখে সরকার দিশেহারা হয়ে পড়েছে। যে কারণে অন্যায়ভাবে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার দুরভীসন্ধি থেকেই আসন্ন জাতীয় নির্বাচনের আগে সরকার সারা দেশে গণহারে রাজনৈতিক নিপীড়ন, হামলা, মামলা ও গ্রেফতার অভিযান জোরদার করে এক ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করার মিশন পরিচালনা করছে। প্রধানমন্ত্রী যখন সংবাদ সম্মেলনে নজির বিহীনভাবে ভিন্নমতের মানুষের বিরুদ্ধে মামলা করতে উদ্বুদ্ধ করে প্রকাশ্যে বক্তব্য দেয়, তখন দেশে যে কি রকম জঘন্য ও ভয়াবহ নিষ্ঠুর প্রতিহিংসার শাসন চলছে, তা বুঝতে কারো বাকী থাকে না। রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে দলীয় এজেন্ডার বাস্তবায়ন এবং ভিন্নমত দমনের কাজে ঢালাওভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, পৃথিবীর ইতিহাসে কোন নিপীড়ক শাসক দেশের জনগণের বিরুদ্ধে জুলুম ও ত্রাস সৃষ্টি করে নিজেদের ক্ষমতাকে স্থায়ী করতে পেরেছে, এমন নজির নাই। তাই সরকারের উচিত জুলুম-অত্যাচার ও নিপীড়নের পথ পরিহার করে অবিলম্বে জাতীয় প্রত্যাশাকে মেনে নিয়ে সকল রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের মুক্তি এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সেনা মোতায়েন করে সুষ্ঠু নির্বাচনের আয়োজন করা। অন্যথায় জালেমের জুলুমের বিরুদ্ধে গণজোয়ার ও গণপ্রতিরোধ শুরু হলে সকল নিপীড়ক খড়কুটোর মতো ভেসে যাবে, ইনশাআল্লাহ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ