বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

শাবিতে ভর্তিচ্ছুক লক্ষাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পদচারণায় মুখরিত সিলেট

সিলেট ব্যুরো : গতকাল শনিবার সারাদিন ছিল সিলেটে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি। বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে অর্ধ-লক্ষাধিক পরীক্ষার্থীরা এসেছিলেন বিভাগীয় নগরী সিলেটে। লক্ষাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পদচারণায় মুখরিত ছিল পুণ্যভূমি সিলেট। হোটেল মোটেল আবাসিক অনা-বাসিক, রেলস্টেশন, বাসটার্মিনাল এলাকায় পরীক্ষার্থীদের ভিড়ে গোটা সিলেট লোকে লোকারান্য ছিল। কিন্তু বাধসাধে বৃষ্টি। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিতে বিড়ম্বনায় পড়েন লাখো মানুষ। গনরীর শাবি ক্যাম্পাস ছাড়াও, এমসি কলেজ, সরকারি কলেজ, মদন মোহন কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ ও সরকারি বেসরকারি উচ্চ বিদ্যালয়েও দুই সিফটে ভর্তি পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরিক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার জন্য যানবাহন সংকটে শাবি ভর্তি পরিক্ষার্থীরা। সিলেটের বাস কাউন্টারগুলোতে লেগেছে যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড়। কিন্তু বাসের নেই টিকেট। তাই ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন পরিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। গতকাল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে সিলেটে এসেছেন পরিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। শাবি ভর্তি পরিক্ষায় অংশগ্রহন করতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে আসা সুনিয়া আক্তার দৈনিক সংগ্রাম বলেন, আসার সময় অনেক কষ্ট হয়েছে। বাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য বাসের টিকেট পাচ্ছি না। আজ টিকেট পাবো কি না তা সন্দেহ আছে। চট্টগ্রাম থেকে আসা পরিক্ষার্থী ফয়ছল আবিদ জানান, গতকাল আমরা চার বন্ধু মিলে শাবির ভর্তি পরিক্ষা দিতে এসেছি। চট্টগ্রাম যাওয়ার জন্য তিনটি টিকেট পেয়েছি, কিন্তু এখনও একটি টিকেট পাইনি। সিলেটের দরগা গেইটের ইউনিক বাস কাউন্টারের ম্যানেজার মাহবুবর রহমান জানান, গতকাল সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া বাসগুলো ফেরত না আসায় বাস সংকটে পড়েছে কাউন্টারগুলো। পর্যাপ্ত যাত্রী থাকা সত্তেও বাস দিতে পারছে না পরিবহন কর্তৃপক্ষ। গ্রীন লাইন কাউন্টারের ম্যানেজার শরিফ জানান, কাউন্টার থেকে নিয়মিত বাস ছেড়ে যাচ্ছে। তবে শাবিতে ভর্তি পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় দেশের বিভিন্ন বিভাগ থেকে এসেছে শিক্ষার্থীরা। এ কারণে বাস সংকটে সিলেটের বাস কাউন্টারগুলো। উল্লেখ্য, এবার এ ইউনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮টিসহ মোট ৩৫টি কেন্দ্রে ও বি ইউনিটে মোট ৫৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭০৩টি আসনের বিপরীতে এবার আবেদন করেছে ৭৬১৬০ জন শিক্ষার্থী। সে হিসেবে প্রতি আসনের বিপরীতে ৪৫ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ