মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

রোববারের মধ্যে খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি শেষ করার নির্দেশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে আপিলের শুনানি আগামী রোববারের মধ্যে শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহমুদ মোরশেদ।

গত ১২ মার্চ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্র্ব্তীকালীন জামিন দেন হাইকোর্ট। পরে খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সময়ে জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়। কিন্তু অন্যান্য মামলায় জামিন না পাওয়ায় এখনো কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া। 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদ- দেন রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী পঞ্চম বিশেষ জজ আদালত। রায় ঘোষণার পরপরই তাঁকে ওই দিন বিকেলে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি এখনো সেখানেই আছেন।

কুমিল্লার মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি রোববার : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লায় নাশকতার অভিযোগের মামলায় জামিন চেয়ে করা আবেদনের ওপর রাষ্ট্রপক্ষের শুনানির জন্য আগামী রোববার দিন নির্ধারণ করেছেন হাইকোর্ট।

রাষ্ট্রপক্ষের সময় আবেদনের শুনানি নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান এবং বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে খালেদা জিয়ার আবেদনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে সময় আবেদন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. বশীর আহমেদ। অন্যদিকে, খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

এর আগে ২০১৫ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রামে দুষ্কৃতিকারীদের বাস পোড়ানোর ঘটনায় মামলা করা হয়। ২০১৭ সালের ২ মার্চ ওই মামলায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। পরে এ মামলায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর বিচারিক আদালত খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

পরে বিচারিক আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে গত ২ অক্টোবর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় তার আইনজীবী প্যানেলের অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার কায়সার কামাল জামিন চেয়ে আপিল আবেদন করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর কারাদ-াদেশ দেন বিচারিক আদালত। রায় ঘোষণার পরপরই খালেদা জিয়াকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি এখন সেখানেই আছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ