মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

রাজধানীর থানায় থানায় বিএনপির বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১শে আগস্ট বোমা হামলা মামলায় ফরমায়েসি রায়ের প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে গতকাল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র উদ্যোগে সকল থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশি বাধার মধ্যেও বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই কর্মসূচি সফল করেন। কর্মসূচি চলাকালে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ শ্যামপুর থানা বিএনপি’র নেতা মোঃ স্বাপন মিয়াসহ ১৫/১৬ জনকে গ্রেফতার করে এবং পুলিশী হামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ ১৪/১৫ জন আহত হন।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত মোড়ে  বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। মিছিল থেকে তারেক রহমানসহ দলের নেতাদের বিরুদ্ধে দেওয়া সাজা বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেয়া হয়। পরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রসঙ্গত বুধবার বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়। এ ছাড়া বিএনপি সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের ফাঁসির আদেশ দেয়া হয়।

এদিকে রায় ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রায়কে ‘ফরমায়েশি ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার’ রায় উল্লেখ করে তা প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি। রায়ের প্রতিবাদে দলের পক্ষ থেকে আজ থেকে ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত সাত দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল ছিল প্রতিবাদ কর্মসূচির প্রথম দিন। এরই অংশ হিসেবে রিজভীর নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

শাহবাগ থানা: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১শে আগস্ট বোমা হামলা মামলায় ফরমায়েসি রায়ের প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে শাহবাগ থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল শাহবাগ থানার ২০নং ওয়ার্ডের সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম স্বপনের নেতৃত্বে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপরেশনের গেট থেকে শুরু হয়ে গোলাপশাহ মাজার অতিক্রম করে জিরো পয়েন্ট গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা শামসুদ্দিন ভুঁইয়া, তৌহিদুল ইসলাম বাবু, হযরত আলী, আঃ রশিদ, মোঃ মিজান, মোঃ হাসান, আবুল কাশেম, আলাউদ্দিন, ইমান আলী, মোঃ জাবেদ, মিলন, হাবিব প্রমুখ। শাহবাগ থানা অপর একটি বিক্ষোভ মিছিল দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও ২১শে আগষ্ট বোমা হামলার রায়ের প্রতিবাদে বিজয় নগর পানির টাঙ্গি হইতে পল্টন মোড়ে এসে পুলিশের ধাওয়ায় মিছিলটি ছত্র ভঙ্গ হয়ে যায়। মিছিলে অংশগ্রহণ করেন শাহবাগ থানা বিএনপির নেতা মোঃ মোরশেদ আলম, গোলাম সরোওয়ার অপু, বিপ্লবুল হক বিপ্লব, ইউসুফ আলী ফরাজী (পিন্টু), শহিদুল ইসলাম, রাকিব, নোওয়াব আলী, মোঃ ফরিদ সহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ। 

রমনা থানা: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১শে আগস্ট বোমা হামলা মামলায় ফরমায়েসী রায়ের প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে রমনা থানার ১৯ নং ওয়ার্ড বিএনপি’র উদ্যোগে মগবাজার ওয়ার্লেস মোড় থেকে শুরু হয়ে মগবাজার মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিলে অংশগ্রহণ করেন রমনা থানার বিএনপি’র নেতা মোঃ হুমায়ন কবির, মহিউদ্দিন, হৃদয়, মোঃ সুমন, এম এইচ মিল্লাত, এ. আর ফরহাদ, বি মামুন, রিপন, জলিল প্রমুখ।

বংশাল থানা: ২১শে আগষ্ট বোমা হামলা মামলায় ফরমায়েসী রায়ের প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে বংশাল থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল বংশাল থানার সভাপতি তাজউদ্দিন আহম্মেদ তাইজু ও সাধারণ সম্পাদক মামুন আহমেদ এর নেতৃত্বে আল বাজার হয়ে নর্থ সাউথ রোড প্রদক্ষিণ করে সুরিটোলা স্কুলের সামনে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্নদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাহাবুবুর রহমান, বিপু, মোঃ কামাল, মাহবুব, জামাল, জাব্বার, মঈন, সিরাজ, ডালিম, লিটন, সোহেল, শফিক, স্বপন, মোশারফ, রিদয়, রহিম, সালেহ, সাইদ, হাবিব, আলমগীর, সামাদ, জনি, মিথুন প্রমুখ।

সূত্রাপুর থানা: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১শে আগষ্ট বোমা হামলা মামলায় ফরমায়েসী রায়ের প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে সূত্রাপুর থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল সূত্রাপুর থানার বিএনপির সাধারন সম্পাদক এম এ আজিজের নেতৃত্বে সিএমএম কোট এলাকা থেকে শুরু করে বাহাদুর শাহ পার্ক (ভিক্টোরিয়া পার্ক) এ এসে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নেতা মোঃ মোহন, মোঃ দেলোয়ার, মোঃ জন, এড. এসএম ফয়েজ, এড. এম এ সালাম সরদার সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।  

কলাবাগান থানা: কলাবাগান থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি কলাবাগান থানা বিএনপি সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম সিরাজের নেতৃত্বে বাংলাভিশন টিভি মোড় থেকে শুরু হয়ে পান্তপথ ফার্নিচার মার্কেটে এসে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে অংশ নেন মনির হোসেন কামাল, মঈন-উ, কামাল হোসেন, শাহপরান, মোঃ স্বপন, মোঃ হিরা প্রমুখ।

কামরাঙ্গীর চর: কামরাঙ্গীরচর থানা বিএনপির নেতা হাজী মনির হোসেন চেয়ারম্যান এর নেতৃত্বে ঝাউচর চৌরাস্তা থেকে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঝাউচর বেঁড়ীবাধ মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন হাজী আউলাদ হোসেন, আবুল কালাম আজাদ, মোঃ খায়ের উদ্দিন, জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ। 

শ্যামপুর থানা: শ্যামপুর থানার বিএনপির সভাপতি আনম সাইফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ৮০ ফুট রোড পাইপ রাস্তা থেকে শুরু হয়ে গেন্ডারিয়া রেল স্টেশন এর সামনে আসতে পুলিশি ধাওয়াই মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় এবং বিএনপি নেতা মোঃ স্বপন মিয়া নামে একজনকে গ্রেফতার করে। উক্ত মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা মোঃ ইমতিয়াজ আহমেদ টিপু, সালাউদ্দিন রতন, আঃ মান্নান, মোঃ নজরুল ইসলাম, রাশেদ খান, আঃ খালেক লিটন প্রমুখ।

ডেমরা থানা: ডেমরা থানা একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি এবং ডেমরা থানা বিএনপি’র সভাপতি জয়নাল আবেদিন রতন চেয়ারম্যান এর নেতৃত্বে ডেমরা থানা বামুল হইতে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ডেমরা ব্রাক সেন্টার গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আঃ কুদ্দুস, মনির হোসেন মোল্লা, রাসেল মোল্লা, রুবেল, নোমান ও আঃ গফুর এবং মহিলাদলের মিসেস মরিয়ম প্রমুখ। ডেমরা থানার অপর একটি বিক্ষোভ মিছিল ডেমরা থানার সাধারণ সম্পাদক হাজী আবুল হাশেম এর নেতৃতে ডেমরা ডগাই থেকে শুরু হয়ে বামুল গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অংশ নেন ডেমরা থানা বিএনপি নেতা মোঃ আবু নোমান, মোঃ আনিস, মোঃ রহমতুল্লাহ, মোঃ দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। ডেমরা থানার অপর একটি বিক্ষোভ মিছিল ডেমরা গলাকাটা নুরানী মসজিদ সংলগ্ন থেকে শুরু হয়ে ডেমরা বকুল তলা এসে শেষ হয়। মিছিলে অংশ নেন ডেমরা থানা বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলম, মোফাজ্জল হোসেন, খায়রুল কুদ্দুস, নিয়ামুল আরিফ সোহাগ, শাহ আলী, নুর ইসলাম, মোঃ সেলিম প্রমুখ।  

ওয়ারী থানা: ওয়ারী থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল ওয়ারী থানার সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক মুক্তো এর নেতৃত্বে নবাবপুর ডিসেন্ট মার্কেট থেকে শুরু করে মদনপাল হয়ে নবাবপুর রোডে এসে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন থানা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সেলিম, কে এস টমাস, এড. মাহফুজুর রহমান মনা, মোঃ ইব্রাহিম, তারিক হোসেন, মোঃ জাকির হোসেন, আব্দুল হাই, মোঃ ইমরান হোসেন, মোঃ রাহাত, ডলি প্রমুখ। 

গেন্ডারিয়া থানা: গেন্ডারিয়া থানা একটি বিক্ষোভ মিছিল কাঠের পুল থেকে শুরু হয়ে দয়াগঞ্জ মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অংশগ্রহণ করেন বিএনপি নেতা মোঃ মাহবুব রহমান মাহবুব, মোঃ নাজিম উদ্দিন, এম এইচ রবিন, মাসুদ রোমান, নুর হোসেন,দিপ্ত, রাজন, মনা প্রমুখ।

কদমতলী থানা: কদমতলী থানা বিএনপি’র উদ্যোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি সহ-সভাপতি ও কদমতলী থানা বিএনপি সভাপতি হাজী মীর হোসেন মীরুর নেতৃত্বে মুরাদপুর খন্দকার রোড থেকে শুরু হয়ে ধোলাইপাড় গীত সংগী সিনেমা হলে সামনে গিয়ে শেষ হয়। বিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা ও কদমতলী থানা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক জুম্মন মিয়া চেয়ারম্যান, বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক বাদল রানা এছাড়াও আনোয়ার হোসেন স্বপন, আয়নাল শিকদার, হাজী কামরুল আজিজ খান ইমন, সবুজ পাশা, মোঃ লিটন, মোঃ মুন্না, জুয়েল গিয়াস, মোঃ আফজাল, মোঃ ইসমাইল, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মোঃ বাবুল, মোঃ রবিউল, মোঃ সুজন, মোঃ হিরা, সায়েম, ফয়সাল, মোঃ মুঞ্জু খান, মোঃ সোহেল, মোঃ ফাদাদ প্রমুখ।

 কোতয়ালী থানা: কোতয়ালী থানা বিএনপি’র উদ্যোগে কোতয়ালী থানার সভাপতি হায়দার আলী বাবলার নেতুত্বে ইসলামপুর রোড থেকে শুরু হয়ে পাটুয়াটলী গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন থানা সংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোস্তাক হোসেন, মোঃ হাবিব, আবুল কাদের, হাজী আনসার, এস এ আলাউদ্দিন, হাজী পাভেজ প্রমুখ।

মতিঝিল থানা: বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে গতকাল মতিঝিল থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল মতিঝিল থানার সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আক্তার হোসেন এর নেতৃত্বে আরামবাগ পুলিশ ফাঁড়ি থেকে শুরু হয়ে কমলাপুর বিআরটি বাসস্ট্যান্ড গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র নেতা হাজী মোঃ সোলেমান, কোরাইশী, মোঃ রুবেল, মোঃ জাহিদ, মোঃ ইমন, মোঃ নোমান প্রমুখ। 

 এ ছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির চকবাজার, লালবাগ, হাজারীবাগ, মুগদা, পল্টন, নিউমার্কেট, সবুজবাগ, ধানমন্ডি ও খিলগাঁও থানার নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ মিছিল করে।

এদিকে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলার রায়ের প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল তেজগাঁও সাতরাস্তায় অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে নেতৃত্বদেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান।

উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক তহিরুল ইসলাম তুহিন, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির দপ্তর সম্পাদক এ.বি.এম. এ. রাজ্জাক, পল্লবী থানার বিএনপি সভাপতি কমিশনার সাজ্জাদ হোসেন, দারুস সালাম থানার সভাপতি- হাজী আঃ রহমান, তুরাগ থানা বিএনপির সভাপতি মোঃ আমান উল্লাহ মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ খোকা, রূপনগর থানার সভাপতি আব্দুল আউয়াল, মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ এনায়েতুল হাফিজ, মিরপুর থানার সাধারন সম্পাদক হাজী ওয়াজেদ উদ্দিন। রূপনগর থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ইঞ্জি. মজিবুল হক, এস.এম রফিকুল ইসলাম, আঃ সালাম, কাজী মজিবুর রহমান, মোঃ তোফায়েল আহমেদ, কাজী বাবু সহ অসংখ্য নেতাকর্মী পুলিশি ভয়ভীতি উপেক্ষা করে মিছিলে অংশগ্রহণ করেন। মিছিলটি সাতরাস্তা মোড় হইতে বিজিপ্রেস পর্যন্ত যেয়ে শেষ হয়। 

মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির একটি মিছিল মোহাম্মদপুর টাউন হলের সামনে থেকে শুরু করে মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড এ গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনায়েতুল হাফিজ। সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান ইসহাক, দেলোয়ার হোসেন মামুন, আনোয়ার হোসেন মাসুদ, আলী কাউছার পিন্টু, কামাল হোসেন, শাওন আহাম্মেদ স্বপন, আফজাল হোসেন স্বপন সহ আরো অনেকে। 

উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির একটি মিছিল থানার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আফাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে থানার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

 মিরপুর, শাহ আলী ও দারুস সালাম থানা বিএনপির একটি মিছিল জনাব এস.এ সিদ্দিক সাজু সাহেবের নেতৃত্বে একটি মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন কে.এম স্বাম্মী, ইঞ্জি. এম.এ সামাদ, সোলায়মান দেওয়ান, রিপন আহাম্মেদ, অনিক ইসলামসহ বিএনপি ও সকল অংগ সংগঠনের সদস্য।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ