শনিবার ৩০ মে ২০২০
Online Edition

সিংড়ায় অবৈধ সৌঁতিজাল ও বানা দিয়ে মৎস্য নিধন

মো. আবু জাফর সিদ্দিকী, সিংড়া (নাটোর) : নাটোরের সিংড়ায় চলনবিল ও আত্রাই নদী দখল করে অবৈধভাবে বানার বাঁধ এবং সৌঁতিজাল দিয়ে মাছ শিকার করছে প্রভাবশালীরা। 

তবে অভিযোগ রয়েছে, ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নামে বিলের বিভিন্ন এলাকা ‘ইজারা’ দিয়ে অবৈধভাবে মাছ শিকার করছে।

এলাকাবাসীরা জানান, নাটোরের সিংড়ার অধিকাংশ এলাকা চলনবিল বেষ্টিত। বিলে বর্ষার পানি চলে আসায় এসব এলাকায় মাছ শিকারিদের তৎপরতা বেড়েছে।

সরেজমিন দেখা যায়, উপজেলার দমদমার জোলার বাতা, নিংগঈন-জোড়মল্লিকা, পাটকোল-কতুয়াবাড়ি, সারদানগর, শেরকোল ইউনিয়নের তেলীগ্রাম-সিধাখালী বিলে বানার বাঁধ এবং সৌঁতিজাল দিয়ে ছোট-বড় মাছ, কাঁকড়া ও শামুক নিধন করা হচ্ছে। বাঁধাগ্রস্ত করা হচ্ছে পানি প্রবাহ। পরিবেশ উন্নয়ন ও প্রকৃতি সংরক্ষণ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ জানান, চলনবিলে বানার বাঁধ ও সৌঁতিজাল দেয়ায় সব ধরনের মাছ ও জলজ প্রাণীর জীবনধারণের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এতে মাছসহ বিভিন্ন জলজ পোকামাকড় বিলুপ্তির পথে। এসব রোধে প্রশাসনের অভিযান ও এলাকাবাসীর সচেতনতা প্রয়োজন।

এ বিষয়ে সিংড়া উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, আমরা ইতিমধ্যে কয়েকটি বানা ও সৌঁতিজাল উচ্ছেদ করেছি এবং অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, বানার বাঁধ ও সৌঁতিজাল দিয়ে মাছ শিকারকারীদের তালিকা করা হচ্ছে। প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, আমরা সবাই মিলে এই মানুষদের সচেতন করব। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বিলে বা নদীতে কোন অবৈধ সৌঁতিজাল বা বানার বাঁধ চালাতে দিবো না। যত প্রভাবশালী ব্যক্তিই সৌঁতি দিক না কেন তা উচ্ছেদ করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ