সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মক্কা-মদিনার যাতায়াতে তিন ঘণ্টা সময় কম লাগবে

৪৫০ কিলোমিটার নতুন এই রেল পথে চলবে হাই স্পীড ট্রেন

২৬ সেপ্টেম্বর, আনাদুলো/ এসপিএ/ রয়টার্স : পর্যটক, বিশেষ করে হাজি ও ওমরা পালনকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি এবং তাদের ভ্রমণ সহজ ও আরামদায়ক করতে পবিত্র নগরী মক্কা ও মদিনার মধ্যে দ্রুতগতির ইলেক্ট্রিক ট্রেন সার্ভিস চালু করেছে সৌদি সরকার। এর ফলে মক্কা থেকে মদিনা যেতে কিংবা আসতে আগের চেয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা সময় কম লাগবে। সৌদি বাদশা সালমান মঙ্গলবার এ ট্রেন উদ্বোধন করেন।

সৌদি সরকারি গণমাধ্যম এসপিএ’র বরাত দিয়ে তুর্কি গণমাধ্যম আনাদলু বলেছে, সাড়ে চার শ কিলোমিটারের হারামাইন হাই-স্পিড রেল সিস্টেমের মাধ্যমে মক্কা থেকে মদিনায় বছরে ৬ কোটি যাত্রী আনা-নেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এ রুটে চলাচলকারী ট্রেন ঘণ্টায় তিন শ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিবে বলে জানানো হয়েছে। সৌদি আরবের যোগাযোগমন্ত্রী নাবিল বিন মোহাম্মাদ আল-আমুদি জানান, দীর্ঘ এই রুটে পাঁচটি স্টেশন থাকবে। সেগুলো হলো-মক্কা, জেদ্দাহ, কিং আব্দুল্লাহ ইকোনোমিক সিটি, কিং আব্দুলআজিজ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এবং মদিনা। মক্কা থেকে মদিনায় যেতে বা আসতে আগে যে সময় লাগতো এখন তার থেকে প্রায় তিন ঘণ্টা সময় কম লাগবে। আগে মক্কা থেকে মদিনা যেতে প্রায় দ্বিগুণ সময় লাগতো। সেইসঙ্গে যাত্রীদের যাতায়াত যাতে আরামদায়ক হয় সে ব্যবস্থাও থাকবে ট্রেনে।

বার্তা সংস্থা জানায়, যোগাযোগমন্ত্রী নাবিল বিন মোহাম্মাদ আল-আমুদি বলেছেন, আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে হারামাইনের (মক্কা-মদিনার পথ) মধ্যকার ভ্রমণ সহজ ও স্বল্প সময়ের হবে। ইসলাম ও মুসলমানদের সেবাদানের যে প্রতিশ্রুতি সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছিল এটা তারই বাস্তবায়ন।

প্রজেক্টের ম্যানেজার মোহাম্মাদ ফাল্লাতাহ বলেছেন, এই ট্রেন হাজিদের পাশাপাশি সৌদি ও বিদেশি নাগরিকদের দ্রুত ও নির্ভরযোগ্য পরিবহন নিশ্চিত করবে।

মঙ্গলবার ট্রেনটি উদ্বোধনের আগে এক সাক্ষাৎকারে ফাল্লাতাহ বলেন, ‘ভ্রমণ আরামদায়ক হবে। যাত্রীদের জন্য বই বা ম্যাগাজিন, বিজনেস ক্লাসে স্ক্রিনে দেখা ব্যবস্থা এবং কফি ও হালকা খাবারের ব্যবস্থা থাকবে।’ রয়টার্স বলছে, হজ ও ওমরাসহ সৌদি আরবে বছরে প্রায় দুই কোটির বেশি পর্যটক যাতায়াত করেন। এর মধ্যে বিদেশি শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা রয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ