মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

বাঁশখালী আলাওল ডিগ্রী কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা: বাঁশখালী পৌরসভায় এক কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্য হয়েছে। বাঁশখালী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আস্করিয়া পাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের মেয়ে নিহত আমেনা বেগম (২০) সদ্য বিবাহিত ছিলেন। পারিবারিকভাবে একই এলাকার মনির আহমদের পুত্র  প্রবাসী ওবাইদুলের সাথে বিয়ে হয় প্রায় ৩ মাস আগে। আমেনা বেগম বাঁশখালী আলাওল ডিগ্রি কলেজের মানবিক বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। গত শনিবার গভীর রাতে তার মুত্য হয়। এ ব্যাপারে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার তৌহিদুল আনেয়ার বলেন, গভীর রাতে হাসপাতালে নিয়ে আসা আমেনা বেগমের গলায় এবং হাতে আঘাতের চিহ্ন থাকায় আমরা পুলিশে খবর দিই। পুলিশ এসে লাশ নিয়ে গিয়েছে। বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, লাশকে পোষ্ট মর্টেমের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে রিপোর্ট পাওয়া পর  ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমেনা বেগমের মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ হলে পুলিশের পক্ষ থেকে লাশ পোস্ট মর্টেমের ব্যবস্থা করা হয়। অথচ লাশ পোস্ট মর্টের্মের জন্য প্রেরণ করা হলে অযৌক্তিকভবে এলাকাবাসী ও কিছু শিক্ষার্থীরা এসে তাতে বাঁধা প্রধান করে। এদিকে নিহতের মা নুরুন নাহার বেগম জানান, আমার মেয়ে এবং মেয়ে জামাই আমার বাড়িতেই থাকতো। গত শনিবার  ভোর রাতে অসুস্থ হলে আমি মেয়েকে ডাকি। তখন মেয়ে এবং মেয়ের জামাই দুইজনই আমার কাছে আসে। মেয়ের জামাই আমার পাশে বসা অবস্থায় মেয়ে বাথরুমে যায়। তবে বাথরুম থেকে বের না হওয়ায় বাথরুমের দরজা ভেঙে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে বাঁশখালী হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরে আমরা তার লাশ বাড়িতে নিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ এসে থানায় নিয়ে যায়। এই ব্যাপারে বাঁশখালী উপজেলা সদরে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে প্রত্যক্ষ সূত্রে জানা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ