রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

উদ্ধার হল প্রায় ১৭০০ বছরের পুরনো আংটি

লন্ডন, ১২ জুন: অজানাকে জানার আর অদেখাকে দেখার আগ্রহ মানুষের চিরকালীন। তাই আচমকা কোনও পুরনো জিনিস পাওয়া বা নতুন কোনও কিছু আবিষ্কার মানুষকে যুগ যুগ ধরে উৎসাহ জুগিয়েছে। নতুন কোনও কিছু পাওয়ার মানুষকে যুগ যুগ ধরে উৎসাহ জুগিয়েছে। নতুন কোনও কিছু পাওয়ার মতো পুরনো কোনও দুর্মুল্য বস্তুলাভও মানুষের মনে একই রকম রোমাঞ্চের উদ্রেক করে। সম্প্রতি এইরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে গ্রেট ব্রিটেনের হ্যাম্পশায়ার কাউন্টির অন্তর্গত ট্যাঙ্গলে গ্রামে, যেখান থেকে উদ্ভুত একটি সোনার আংটি আবিষ্কৃত হয়েছে। দেখতেও তা বেশ সুন্দর। চারপাশটা সোনা দিয়ে বাঁধানো আংটির মাঝখানে রয়েছে একটি দামি নিকোলো স্টোন। সেখানে রয়েছে কিউপিড-এর একটি নগ্ন ছবি। কিউপিড কিন্তু ব্রিটেনের কেউ নন। গ্রিক মিথোলজির চরিত্র।
গ্রিক পুরাণকে অনুসরণ করে বলতে হয়, কিউপিড গ্রিসের কাম ও প্রেমের দেবতা। আরও গুছিয়ে বললে যৌন উত্তেজনার দেবতা এবং তিনি শুক্রের পুত্র। গ্রিসের ভাষায় কিউপিডকে বলে ‘ইরোস’। গ্রিসের অধিবাসীরা প্রাচীনকাল থেকে বিশ্বাস করে আসছেন কিউপিডের হাতে যে-তীর-ধনুক রয়েছে, সেই তীর যদি কোনও মহিলাকে বিদ্ধ করে, তবে সে কিউপিডের প্রেমে পড়ে যায়। ট্যাঙ্গেলে পাওয়া আংটিতে কিন্তু তীর-ধনুক হাতে বালক কিউপিডের ছবি রয়েছে।
সেখানে একটি বাড়ির বাগানের নীচ থেকে আশ্চর্যজনকভাবে উদ্ধার করা হয়েছে আংটিটি। গবেষকরা তা পরীক্ষা করে জানিয়েছেন আনুমানিক সেটি ১৭০০ বছরের পুরনো, মানে চতুর্থ শতাব্দীর। তবে আংটিটির প্রাচীনত্ব বের করতে গবেষকদের অন্যান্য কিছুর তুলনায় একটু বেশিই সময় লেগেছে। তবে অত বছর আগে যেভাবে কিউপিডের ছবি আংটির মধ্যে খোদাই করা হয়েছে, তা দেখে গবেষকদল রীতিমতো বিস্ময়ে অভিভূত। তাঁদের অনুমান, আংটিটি খুব সম্ভবত কোনও রোমান শাসকের মালিকানাধীন ছিল। আপাতত তা সকলের দেখার জন্য ব্রিটিশ মিউজিয়ামে রাখা আছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ