বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

মিসরকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডের পথে রাশিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক : প্রথমার্ধে রাশিয়াকে ঠেকিয়ে রাখতে পারল মিসর। দ্বিতীয়ার্ধে উড়ে গেল সব প্রতিরোধ। দেনিস চেরিশেভ আর আর্তেম জুবার গোলে টানা দ্বিতীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো স্বাগতিকরা। সেন্ত পিতার্সবুর্গে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে রাশিয়া। এই জয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে স্তানিস্লাভ চেরচেসভের শিষ্যরা। ১৯৮২ আসরের পর বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জিতল রাশিয়া। এই জয়ে ১৯৮৬ আসরের পর প্রথমবারের মতো গ্রুপ পর্ব পার হওয়ার আশা জাগালো দলটি। সৌদি আরবের কাছে উরুগুয়ে না হারলেই দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত হয়ে যাবে স্বাগতিকদের। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে কাঁধে চোট পাওয়ার পর প্রথমবারের মতো খেলেন মোহামেদ সালাহ। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে গোলও করেন লিভারপুলের এই তারকা ফরোয়ার্ড। তবে টুর্নামেন্টে দলের দ্বিতীয় হার ঠেকাতে পারেননি তিনি। উরুগুয়ের কাছে ১-০ ব্যবধানের হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করে মিশর। সেন্ট পিতার্সবুর্গ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দুই দলের গতিময় ফুটবলে শুরু থেকেই জমে ওঠে ম্যাচ। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া রাশিয়া একটু এগিয়ে ছিল বল দখলে। সুযোগও বেশি তৈরি করে স্বাগতিকরাই। তবে সালাহকে ফিরে পেয়ে উজ্জীবিত মিসরও পাল্টা আক্রমণে ছড়ায় ভীতি। তবে ফুটবলে দুই দলের প্রথম দেখায় পেরে উঠেনি আফ্রিকার দলটি। সপ্তম মিনিটে রাশিয়ার আলেকসান্দার গোলোভিনের বাঁকানো শট একটুর জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। পঞ্চদশ মিনিটে একই ভাবে চেষ্টা করেন ত্রেজেগে। মিসরের মিডফিল্ডারের বাঁকানো শট বার ঘেঁষে চলে যায় বাইরে। প্রতিপক্ষের রক্ষণে গিয়ে খেই হারাচ্ছিল রাশিয়া আর মিসরের আক্রমণগুলো। দূরপাল্লার শটে গোলরক্ষকদের পরীক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করে তারা। ৪২তম মিনিটে ডি-বক্সের মুখ থেকে বাঁ পায়ে শট নেন সালাহ। দূরের পোস্ট দিয়ে বাইরে চলে যায় বল।  ৪৭তম মিনিটে গোলোভিনের ক্রস বিপদমুক্ত করতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন আহমেদ ফাতহি। চলতি আসরে এটি পঞ্চম আত্মঘাতী গোল। আর্তেম জুবাকে লক্ষ্য করে ক্রস করেন গোলোভিন। ক্লিয়ার করতে গিয়ে অধিনায়কের হাঁটুতে লেগে দিক পরিবর্তন করে বল বার ঘেঁষে চলে যায় জালে। ৫৯তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে রাশিয়া। বাই লাইন থেকে মারিও ফের্নান্দেসের ক্রসে অরক্ষিত দেনিস চেরিশেভ ঠিকানা খুঁজে নেন। ভিয়ারিয়াল মিডফিল্ডারের আসরে  তৃতীয় গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকার শীর্ষে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পাশে বসলেন । তিন মিনিট পর জুবা মাঝমাঠ থেকে ইলিয়া কুতেপভের বাড়ানো বল বুক দিয়ে নামিয়ে একজনকে কাটিয়ে গড়ানো শটে জাল খুঁজে নেন। ৭৩তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান সালাহ। তাকেই ডি-বক্সে ফাউল করায় ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে স্পট কিকের সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন রেফারি। ঠাণ্ডা মাথায় চমৎকার শটে বল জালে পাঠান সালাহ। বাকি সময়ে দারুণ চেষ্টা করলেও ব্যবধান কমাতে পারেনি মিশর। রক্ষণে মনোযোগ বাড়ানোয় শেষের দিকে আর সেভাবে আক্রমণ করতে পারেনি রাশিয়া।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ