মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে আজ জয়ের বিকল্প নেই আর্জেন্টিনার

আর্জেন্টি ও ক্রোয়েশিয়া। আর্জেন্টিনার আজ বাঁচামরার ম্যাচ

স্পোর্টস রিপোর্টার : রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই আইসল্যান্ডের কাছে পয়েন্ট হারিয়েছে মেসির আর্জেন্টিনা। ম্যাচটা শুধু ১-১ গোলে ড্রই হয়নি। এই ম্যাচে পেনাল্টি মিস করে মেসি কোটি কোটি ভক্তদের হৃদয় ভেঙেছেন। প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট হারানো ফেভারিট আর্জেন্টিনার আজকের ম্যাচে জয় ছাড়া বিকল্প নেই। কিন্তু আজ দলটির সামনে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া। প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টিনা ড্র করলেও বড় জয় দিয়েই শুরু করেছিল ক্রোয়েশিয়া। ফলে এই ম্যাচে জয়ের টার্গেট নিয়ে মাঠে নামবে ক্রোয়েশিয়াও। ফলে ম্যাচটি যে কঠিন ম্যাচ হবে তা বলাই যায়। বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় ম্যাচটি শুরু হবে। এর আগে ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপে দুই দলের একবারই দেখা হয়েছিল। ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনা ১-০ গোলে জয়ী হয়। সেই প্রেরণা নিয়েই জয়ের জন্য মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা।  ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ-ডি’র নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ এটা আর্জেন্টিনার। আর গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচকে সামনে রেখে অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে সামনে রেখেই দল উজ্জীবিত হবার অনুপ্রেরণা খুঁজছে। এর আগে পুঁচকে আইসল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করে বিশ্বকাপের শুরুটা মোটেই ভালো করেনি গতবারের রানার্স-আপ দলটি। মূলত মেসির পারফরমেন্সে হতাশ হতে হয়েছে পুরো দলকে। কিন্তু তারপরেও কোনভাবেই তারা মেসির ওপর আস্থা হারাতে চায়না। প্রথম ম্যাচের হোঁচটের পরে গ্রুপে আর্জেন্টিনাকে একমাত্র দল হিসেবে ক্রোয়েশিয়ার শক্ত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হচ্ছে আজ। এদিকে প্রথম ম্যাচে মড্রিচ, মানজুকিচ, রাকিটিচদের কল্যাণে নাইজেরিয়াকে ২-০ গোলে সহজেই পরাজিত করে নিজেদের শক্তিমত্তার জানান ইতোমধ্যেই দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। সে কারণে আইসল্যান্ডের সাথে ড্র এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টাইনদের এগিয়ে যাবার ক্ষেত্রে বড় শঙ্কার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে মেসিদের। ২০০২ সালের পরে প্রথমবারের মত গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় না হয়ে যায় কোটি ভক্তের প্রিয় এই দলটি। যদিও ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে পরাজিত হলেও আর্জেন্টিনার সামনে নক আউট পর্বে যাবার সম্ভাবনা থাকবে। দলের সাবেক কিংবদন্তী দিয়েগো ম্যারাডোনা আইসল্যান্ডের বিপক্ষে পয়েন্ট হারানোর বিষয়টি কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেন না। তার মতে এতে দলের মর্যাদা হানি হয়েছে। এতটাই ক্ষুব্ধ তিনি হয়েছেন যে এই ধরনের পারফরমেন্স আবারো হলে কোচ জর্জ সাম্পাওলি আর্জেন্টিনায় ফিরতে পারবেন না বলেও ম্যারাডোনা সতর্ক করে দিয়েছেন। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটিতে মেসির পেনাল্টি মিসের সাথে সাথে ১১টি ব্যর্থ শট আর্জেন্টিনাকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে দেয়নি। ১৯৭০ সালে ইতালির লুইগি রিভারের পরে বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে একজন খেলোয়াড়ের এটাই সর্বোচ্চ ব্যর্থতা। যদিও আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়রা দ্রুতই প্রথম ম্যাচের তিক্ততা ভুলে বার্সেলোনা সুপারস্টারের পক্ষেই কথা বলেছেন। আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার পাওলো দিবালা বলেছেন, ‘আমরা সবাই তার সাথে আছি। সে নিজেও জানে অন্যান্য যেকোনো সময়ের তুলনায় এবার সে আমাদের সকলের কাছ থেকে অনেক বেশী সমর্থন পাবে। প্রতিটি মুহূর্ত আমরা তাকে সহযোগিতা করার জন্য প্রস্তুত আছি। অবশ্যই আমরা তার পাশে আছি।’ এদিকে ডিফেন্ডার ক্রিস্টিয়ান আনসালদি বলেছেন আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যর্থতা সত্তেও মেসি মানসিক ভাবে শক্ত আছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই জানি যে মেসি আমাদের দল ও দেশকে প্রতিনিধিত্ব করছেন। সে শুধুমাত্র বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় নন, মাঠেও সে সকলের সেরা। সে দারুন ফর্মে আছে এবং এটা আমাদের জন্য ইতিবাচক।’ আইল্যান্ডের বিপক্ষে এক পয়েন্ট অর্জিত হলেও পুরো ম্যাচে আর্জেন্টিনারই দাপট ছিল। ২৬টি শট এবং ৭২ শতাংশ বল পজিশন তারই প্রমাণ। কালকের ম্যাচে ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকটি পরিবর্র্তনের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। তরুণ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান পাভোনকে এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার জায়গায় দেখা যেতে পারে। অন্যদিকে আক্রমণাত্মক কৌশলে খেলারই সম্ভাবনাই বেশি বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। যে কারণে মধ্যমাঠে লুকাস বিগলিয়ার জায়গায় প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইর গিওভানি লো সেলসোকে মূল একাদশে দেখা যেতে পারে। আক্রমণভাগে বরাবরের মতো মেসির নেতৃত্বে আরো থাকবেন আইসল্যান্ডের সাথে গোল করা সার্জিও আগুয়েরো। ৩-৩-৩-১ ফর্মেশনেই তাদের খেলার সম্ভাবনা বেশি। অন্যদিকে ক্রোয়েশিয়া নাইজেরিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে। কিন্তু আর্জেন্টিনার বিপক্ষে একটু বাজে পারফরমেন্সই পুরো পরিস্থিতি পাল্টে দিতে পারে। বিশ্বকাপের আসার আগে দলের মানসিক পরিস্থিতি খুব একটা ভালো ছিল না। দলের অধিনায়ক মাদ্রিদ তারকা লুকা মড্রিচের বিপক্ষে দুর্নীতির অভিযোগ পুরো ক্রোয়েশিয়ান ফুটবলকে সমালোচিত করেছে। পিঠের ইনজুরির কারণে স্ট্রাইকার নিকোলা কালিনিচ দেশে ফিরে গেছেন। কোচ জøাটকো ডালিচ ইনজুরির কথা বললেও ক্রোয়েশিয়ান গণমাধ্যমের দাবি প্রথম ম্যাচে মূল একাদশে খেলার সুযোগ না পেয়ে বদলী হিসেবে মাঠে নামতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন কালিনিচ। যে কারণে ক্ষুব্ধ টিম ম্যানেজমেন্ট তাকে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে। যদিও মাঠের বাইরের বিষয়গুলো এখন আর ক্রোয়েশিয়াকে ভাবাচ্ছে না। আজ তারা অপরিবর্তিত দল নিয়েই মাঠে নামবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ