বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

রোনালদোর গোলে পর্তুগালের জয় ॥ মরক্কোর বিদায়

কামরুজ্জামান হিরু : ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর একমাত্র গোলেই জয়ের দেখা পেল পর্তুগাল। সেই সাথে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার সম্ভাবনা জিইয়ে রাখলো দলটি। পর্তুগালের কাছে ১-০ গোলে হেরে যাওয়ায় গ্রুপ পর্ব থেকেই মরোক্কোর বিদায় নিশ্চিত হয়েছে। বুধবার মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘বি’ গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ইউরোপ ও আফ্রিকার দল দু’টি মুখোমুখি হয়েছিলো টিকে থাকার লড়াইয়ে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে বলের দখলে এগিয়ে ছিলো মরক্কো। গোল লাভের মত একাধিক সুযোগ পেয়েও বাঁচা-মরার ম্যাচে পর্তুগালের সঙ্গে পেরে উঠল না আফ্রিকার দলটি। ব্যবধান গড়ে দিলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ম্যাচের শুরুর দিকে অধিনায়কের গোলে রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেল পর্তুগাল। সেই সাথে পুসকাসকে ছাড়িয়ে নতুন উচ্চতায় পৌচ্ছে গেল রোনালদো। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে খেলা শুরু হলেও ম্যাচের মাত্র চার মিনটে দলকে এগিয়ে নেন পর্তুগিজ অধিনায়ক। জোয়াও মৌতিনিওর ক্রসে একটু নিচু হয়ে চমৎকার হেডে বল জালে পাঠিয়ে আনন্দে মেতে উঠেন রোনালদো। এবারের আসরে এটি পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের চতুর্থ গোল। রাশিয়ার দেনিস চেরিশেভকে (৩) পেছনে ফেলে এককভাবে উঠে এলেন এবারের আসরের গোলদাতাদের তালিকার শীর্ষে। পর্তুগালের হয়ে ৮৫তম গোল পেলেন রোনালদো। হাঙ্গেরির ফেরেঙ্ক পুসকাসকে (৮৪) পেছনে ফেলে এখন এককভাবে তিনি ইউরোপের সর্বোচ্চ গোলদাতা। সব মিলিয়ে রোনালদোর সামনে আছেন কেবল ১০৯টি গোল করা ইরানের আলি দাই। এবারের আসরে এখন পর্যন্ত দ্রুততম দুটি গোলই রোনালদোর। স্পেনের বিপক্ষে গোল করেছিলেন ৩ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে, মরক্কোর বিপক্ষে করলেন ৩ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডে। ৯ মিনিটে আরও একটি গোল পেতে পারতেন রোনালদো। মরক্কোর ডিফেন্সকে ফাঁকি দিয়ে বক্সের ডান দিক থেকে শট নেন রিয়াল তারকা। রাফায়েল গুয়েরেইরোর কাছ থেকে পাওয়া বলটি একটুর জন্য পোস্টের বাম দিক দিয়ে বেরিয়ে যায়। পাল্টা আক্রমণ চালিয়েছে মরক্কোও। ম্যাচের ১১ মিনিটে মেধি বেনাতিয়ার বক্সের মধ্য থেকে নেয়া হেড ফিরিয়ে দেন পর্তুগাল গোলরক্ষক রুই প্যাত্রিসিও।
এর চার মিনিট পর হাকিম জিয়েচের বাঁ পায়ের শট বক্সের মধ্য থেকে ক্লিয়ার করে দেয় পর্তুগাল। ২৩ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে তার আরেকটি শট আটকে দেন গোলরক্ষক প্যাত্রিসিও। এরপর আরও কয়েকটি ভালো সুযোগ তৈরি করেছিল মরক্কো। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি। ৩৯ মিনিটে রোনালদোর পাস থেকে বক্সের মধ্যে গোলরক্ষককে একা পেয়ে গিয়েছিলেন পর্তুগালের গনক্যালো গুয়েদেস। তার দুর্দান্ত ভলিটি এল কাজুই এক হাতে ফিরিয়ে দিলেও সেটা হাত থেকে ছুটে গিয়েছিল। কিন্তু ফিরতি বলে আর পা লাগাতে পারেননি গুয়েদেস।প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয় মিনিটের মাথায় কর্নার থেকে গোলের দারুণ একটি সুযোগ ছিল মরক্কোরও। কিন্তু বেনাতিয়া তাতে মাথা ছুঁয়াতে পারেননি।
দ্বিতীয়ার্ধের  শুরুতে আবার ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করেন রোনালদো। অরক্ষিত বক্সে ঢুকে রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ডে বুলেট গতির শটটি লক্ষ্যে পৌঁচ্ছাতে পারেনি। ম্যাচে সমতা আনতে দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া হয়ে চেষ্টা করলেও ভাগ্য তাদের ফেভার করেনি। ৫৭ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ পায় মরক্কো।ফ্রি-কিক থেকে মিডফিল্ডার ইউনেস বেলহান্দার হেড ঝাঁপিয়ে এক হাতে ঠেকান পর্তুগাল গোলরক্ষক রুই পাত্রিসিও। চার মিনিট পর ডি-বক্সের বাইরে থেকে মেহদি বেনাতিয়ার ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে আর সমতায় আসা হয়নি দলটির। ফলে ১-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।
পর্তুগাল একাদশ : রুই প্যাত্রিসিও (গোলরক্ষক), পেপে, রাফায়েল গুয়েরেইরো, হোসে ফন্তে, কেডরিক, জোয়াও মুতিনহো, হোয়াও মারিও, বার্নার্ডো সিলভা, উইলিয়াম কার্ভালহো, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (অধিনায়ক), গনক্যালো গুয়েদেস।
মরক্কো একাদশ : মুনির এল কাজুই (গোলরক্ষক), আশরাফ হাকিমি, ম্যানুয়েল দ্য কস্তা, মেধি বেনাতিয়া (অধিনায়ক), নাবিল দিরার, হাকিম জিয়েচ, করিম এল আহমেদি, ইউনুস বেলহানদা, এমবার্গ বোসুফা, নরদিন আমরাবাত, খালিদ বোতাইব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ