মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
Online Edition

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন কোচ স্টিভ রোডস

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : অবশেষে কোচ পেল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। স্টিভ রোডসকেই বাংলাদেশের প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন নিশ্চিত করেছেন বিষয়টি। তিনি জানিয়েছেন, ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত রোডসকে নিয়োগ দেয়ার ব্যাপারটি চূড়ান্ত করেছে বোর্ড। রোডসের আন্তর্জাতিক দলকে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা নেই। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি গ্যারি কার্স্টেন বাংলাদেশের কোচ নিয়োগের প্রধান পরামর্শক হিসেবে কাজ করেছেন। আগের দিনই পাপন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, রোডসেরই টাইগারদের প্রধান কোচ হওয়ার ব্যাপারে। বাংলাদেশ দল অবশ্য গত ৬ মাস ধরে প্রধান কোচ ছাড়াই চলছে। কোর্টনি ওয়ালশ এখন অন্তর্বর্তীকালিন কোচের ভূমিকায়। সাক্ষাৎকার পর্বে রোডসের পরিকল্পনা ও চিন্তা-ভাবনা মনে ধরেছে বিসিবি কর্তাদের, তাই নতুন কোচ করার ব্যাপারে খুব বেশি চিন্তা করতে হয়নি তাদের। বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান বলেন, ‘স্টিভ রোডসের কাজের পরিকল্পনা ও চিন্তা-ভাবনা প্রথমবারেই মনে ধরে গেছে আমাদের। তাই কোচ করার ব্যাপারে বেশি কিছু ভাবতে হয়নি আমাদের।’ বাংলাদেশের প্রধান কোচের দায়িত্ব পাওয়ার পর রোডস তার পরিকল্পনার কিছু অংশ ভাগাভাগি করেছেন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে। ক্লাব ক্রিকেটে অর্জন করা অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নয়নে কাজে লাগাতে চান সাবেক এই ইংলিশ উইকেটরক্ষক। তিনি বলেন, ‘এত দিন ধরে কাজ করে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি, তা বাংলাদেশের ক্রিকেটের এগিয়ে যাওয়ার পথে কাজে লাগতে চাই।’ এই প্রথম কোনও জাতীয় দলের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পেলেন রোডস। দায়িত্ব নিয়েই কঠিন পরীক্ষার সামনে পড়তে যাচ্ছেন তিনি। সামনেই ২০১৯ বিশ্বকাপ, ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর নিয়ে কাজে লেগে পড়তে হবে তাকে। মাশরাফি-সাকিবদের দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই তার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। অবশ্য চ্যালেঞ্জটা নিতে প্রস্তুত রোডস, ‘সামনেই ২০১৯ বিশ্বকাপ। যেহেতু ইংল্যান্ডের কন্ডিশন সম্পর্কে আমার খুব ভালো করে জানা আছে, তাই দলকে সেভাবেই তৈরি করতে চাইব।’ বাংলাদেশের নতুন কোচ ৫৩ বছর বয়সী রোডস ছিলেন মূলত উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। ইংল্যান্ডের হয়ে খেলেছেন ১১টি টেস্ট, ওয়ানডে মাত্র ৯টি। তবে খুব একটা উজ্জ্বল নয় তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। ১১ টেস্টে ২৪.৫০ গড়ে করেছেন ২৯৪ রান। আর ৯টি ওয়ানডেতে করেছেন ১০৭ রান, গড় ১৭.৮৩। অবসরের পর ২০০৫ সালে ওস্টারশায়ারের কোচ হিসেবে যোগ দেন। পরে ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ডিরেক্টর অব ক্রিকেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ