মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

যানজটে অতিষ্ঠ জনসাধারণ

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : নবীগঞ্জ পৌর শহরতীর প্রধান সড়কগুলো একদিকে ভাঙা অপরদিকে যানজট থাকায় পৌরবাসীর জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করছে। সেই সাথে পানি নিষ্কাশনের সুষ্ঠু কোন ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টিপাতেই শহরের ওলি-গলিতে পানি জমে জনসাধারণ চলাচলে মারাত্বক বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলার কারণে ময়লার স্তুপ বৃষ্টির পানিতে পচে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। শহরতলীর মধ্যবাজার ওসমানী রোড, শেরপুর রোড, অভয়নগরসহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে ড্রেনেজ ব্যবস্থা অপ্রতুল রয়েছে। ড্রেন থাকলেও ভেতরে ময়লা আবর্জনায় থাকছে ভরপুর। ফলে দুর্গন্ধ চতুর্দিকে ছড়িয়ে পরিবেশ বিষাক্ত হয়ে উঠেছে। অপরদিকে, শহরতলীর সালামতপুরে কোটি টাকা ব্যয়ে বাস টার্মিনাল স্থাপিত হলে ওই টার্মিনাল থেকে সিলেট ও মৌলভীবাজারের বাস যাতায়াত করার কথা ছিলো। কিন্তু এই টার্মিনালের বাস কর্তৃপক্ষ স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে শহরের ভেতরে প্রবেশ করে শেরপুর রোড অতিক্রম করে শহরের ব্যস্ততম নতুন বাজার মোড় আব্দুল মতিন স্কোয়ারে যাত্রী ওঠা নামা করায় জুয়েল ম্যানশন থেকে শিবপাশা রুদ্রগ্রাম সড়ক পর্যন্ত প্রতিদিনই অসহনীয় যানজটের কারণে যাত্রী সাধারণকে অসহনীয় দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই পুরো শহরের মধ্যে পানি আর কাদা একাকার হয়ে শহরবাসীর স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হয়। ময়লা-আবর্জনা ফেলার কোনো স্থান নেই। সব ময়লা আবর্জনা ফেলা হয় থানার ডাকবাংলোর সামনের খালে ও সদর হাসপাতাল গেইটের সামনের খাল সহ যত্রতত্র স্থানে। ফলে এসব জন গুরুত্বপূর্ন স্থানে ময়লা ফেলায় দুর্গন্ধে জন সাধারন নাকে হাত রোমাল দিয়ে চলাচল করতে দেখা যায়। নবীগঞ্জ শহরের ব্যস্থতম সড়ক শেরপুর সড়কে ওয়ানবাই রোড এর দু‘পাশের গলিতে মাছ, সবজি বাজার বসিয়ে অবৈধ পন্থায় ব্যবসা করে আসছে এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা। এছাড়া শহরের মধ্যবাজার ওলিগলিতে সবজি বাজার বসানোর ফলে সামান্য বৃষ্টি হলে পানি ময়লা ও কাদায় একাকার হয়ে যায়। পৌর কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ উদাসীন বলে অভিযোগ করছেন ভুক্তভূগীগণ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ