সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সিংড়া প্রেসক্লাবের সংগ্রাম ও সফলতার ১৬ বছর

সিংড়া প্রেসক্লাবের নির্মাণাধীন ভবন

সিংড়া (নাটোর) : একদল তরুণ ও প্রবীণ লেখকদের ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন চয়েন বার্তার সম্পাদক মোল্লা মোঃ এমরান আলী রানা। নানা প্রতিকূলতা পেরিয়ে, সহযোদ্ধাদের সহযোগিতায় তারই নেতৃত্বে এবং তারই ডাকে সাড়া দিয়ে ২০০৩ সালের ২০শে জানুয়ারী প্রতিষ্ঠা হয় সিংড়ার গণমানুষ ও সাংবাদিকদের আস্থার সংগঠন ‘‘সিংড়া প্রেসক্লাব’’। নাটোরের বৃহৎ উপজেলা সিংড়া। অথচ সংবাদপত্র এবং সাংবাদিকতায় সিংড়া ছিলো অনেক পিছিয়ে। সিংড়ায় সেসময় দু’ একজন সাংবাদিক থাকলেও প্রেসক্লাব গঠন করতে পারেনি কেউ কিন্তু সে কাজটি করেছেন এমরান আলী রানা। ২০০০ সালের কথা তিনি সে সময় চয়েন বার্তা পত্রিকা বের করতেন। রাজু আহমেদ এ সময় তার সাথে যোগাযোগ করে। রাজুর আগ্রহে প্রথমে তাকে ষ্টাফ রিপোর্টার পরে পত্রিকার বার্তা সম্পাদকের দায়িত্ব দেন এবং রেজাউল করিম রেজাকে নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব দেন। ২০০১ সালের কথা, রানা প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠার জন্য ব্যতিব্যস্ত। সারাক্ষণ তার মনে এমন চিন্তা হোঁচট খাচ্ছে বারবার। তখনও তারা বাহিরের কোনো পত্রিকায় কাজ করার সার্টিফিকেট পায়নি। কয়েকজন বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় লিখছে। রানা তখন সবাইকে নিয়ে বসলেন। প্রেসক্লাব করার মত জনবল বা অবকাঠামো এবং সাংবাদিকদের অভাব রয়েছে। নগন্য কজন সাংবাদিকদের নিয়ে প্রেসক্লাব গঠন সম্ভব নয় তাই তিনি রাইটার এ্যান্ড রিপোর্টার ক্লাব গঠনের প্রস্তাব করলেন। কমিটি গঠন হলো সভাপতি, এমরান আলী রানা, সাধারণ সম্পাদক, রেজাউল করিম সহ ১১ সদস্য কমিটি গঠন করা হলো। সদস্য সংগ্রহ চললো, প্রায় ৫০ জন সদস্য হলেন। উৎসাহ উদ্দীপনা বাড়ল। জনতা ব্যাংকের দোতলায় ক্লাবের ভাড়া ঘরে কার্যক্রম চলতে লাগল।  সে সময় দৈনিক দুর্জয় বাংলার সাংবাদিক এমরান আলী রানা ২০ জানুয়ারী নোটিশের মাধ্যমে প্রেসক্লাব গঠনের জন্য মিটিং আহ্বান করেন। আমরা একত্রিত হলাম। অবশেষে ২০০৩ সালের ২৩ জানুয়ারী রাইটার ও রিপোর্টার ক্লাবের কার্যালয়ে গঠিত হলো সিংড়া প্রেসক্লাব। সর্বসম্মতিক্রমে যুগান্তরের সিংড়া প্রতিনিধি নবীউর রহমান শিপলুকে সভাপতি, চয়েন বার্তাও সম্পাদক ও দৈনিক দূর্জয় বাংলার প্রতিনিধি মোঃ এমরান আলী রানাকে সাধারণ সম্পাদক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটিতে আতিউর রহমান, শারফুল ইসলাম খোকনকে সহ-সভাপতি, রাজু আহমেদকে যুগ্ম সম্পাদক, ইসাহক আহমেদকে কোষাধ্যক্ষ, আনোয়ার হোসেনকে সাংগঠনিক সম্পাদক, রেজাউল করিমকে দপ্তর সম্পাদক, নূর মোহাম্মদকে সদস্য করা হয়। ইতিমধ্যে সিংড়া প্রেসক্লাব শক্তিশালী প্রতিষ্ঠানে রুপ নিয়েছে। চলনবিলের কৃতি সন্তান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্িক্ত প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির সার্বিক প্রচেষ্টায় প্রেসক্লাবের নিজস্ব ভবনের কাজ চলছে। বর্তমান সভাপতি এমরান আলী রানা ও সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ এর নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে সিংড়া প্রেসক্লাব। সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আগামী প্রজন্মের কাছে সিংড়া প্রেসক্লাব ইতিহাস হয়ে থাকবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ