বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

হুমকির মুখে শ্রীমঙ্গল লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে জীববৈচিত্র্য

মৌলভীবাজার সংবাদদাতা: চোরচক্রের লাগামহীন গাছ কাটার ফলে উজাড় হচ্ছে শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের জীববৈচিত্র্য। পরিবেশ, খাদ্য আর আবাসস্থলের চরম সংকটে ভুগছে ‘লাউয়াছড়া’ জাতীয় উদ্যানের জীববৈচিত্র্য। নানা কারণে সংরক্ষিত এই বনটির নেই সেই জৌলস। বলতে গেলে মানবসৃষ্ট নানা সংকটে ঐতিহ্য ধরে রাখতে হীমশিম খাওয়া এই উদ্যানটি এখন অনেকটাই ধ্বংসের দোর গোড়ায়। সরজমিনে উদ্যান এলাকায় গেলে স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন সম্প্রতি আবারো উৎপাত বেড়েছে গাছ চোর চক্রের। এখন প্রায়ই রাতে এই দৃশ্য চোখে পড়ছে। তাদের আশঙ্কা এভাবে চলতে থাকলে যে ক’টি বড় গাছ এখনো কোন রকম টিকে আছে তাও উজাড় হয়ে যাবে। চোর চক্রের শকুনি দৃষ্টি ওই গাছগুলোর উপর। তাদের জোর দাবী যে ভাবেই হউক অত্যন্ত লাউয়াছড়ার নাম টিকে রাখতে অবশিষ্ট এই গাছ গুলো ওদের কবল থেকে রক্ষার। জানা গেল এই জাতীয় উদ্যানটির সংকটের তালিকা প্রতিনিয়তই দীর্ঘ হচ্ছে। কিন্তু বয়ে চলা সংকট নিরসনে সংশ্লিষ্টদের নেই কোন মহাপরিকল্পনা কিংবা স্থায়ী উদ্যোগ। নানা কারণে দীর্ঘদিনের চলমান এ সংকটগুলো ঘনীভূত হয়ে এখন মহা হুমকিতে পড়েছে ওখানকার নানা দূর্লভ প্রজাতির বন্য প্রাণীর বাসস্থান,জীবন জীবিকা ও পরিবেশ। আর একারণেই দিন দিন পরিসংখ্যানও কমছে ওখানে ঠাঁই নেওয়া বিশ্বের বিরল ও বিপন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণী, উদ্ভিদ ও জীববৈচিত্র্যের। এ সংকট উত্তরণে (মাঠ জরিপ ও সমীক্ষা শেষে) সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা নানা পরামর্শ ও মতামত দিলেও তা আমলে নিচ্ছেন না কর্তৃপক্ষ। নানা অজুহাতে লোক দেখানো দায়সারা গোচরের দু’একটি কর্মসূচী পালন করেই তারা ক্লান্ত। কর্তৃপক্ষের এমন উদাসীনতায় বিলিনের পথে ওখানকার জীববৈচিত্র্য ও বনজসম্পদ। এমন অভিযোগ সংশ্লিষ্টদের। বিশ্বের বিলুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণী, উদ্ভিদ ও জীববৈচিত্র্যের জন্য বিখ্যাত জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া উদ্যানটি এখন চরম সংকট ও ঝুঁকিতে। এর অন্যতম কারণ উদ্যানটির সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ফলজ ও বনজ গাছ চুরি, বাঁশ চুরি, ভূমি বেদখল, গ্যাস কূপ খনন, বন্যপ্রাণীর খাবার, আবাসস্থল ও অবাধ বিচরণের জায়গা কমে যাওয়া ও শুস্ক মৌসুমে খাবার পানি সংকট। উদ্যানের ভিতর দিয়ে রেল ও সড়কপথ থাকা। তাছাড়া লাউয়াছড়ার ভিতর দিয়ে বৈদ্যুতিক তার ও খুঁটিও টানানো। গবেষকদের অভিমত এ কারনেই বন্যপ্রাণীদের চলাচলে বিঘœ ঘটায় ওরা ভয়ে ভীত থাকছে আর এ থেকে ওরা আক্রান্ত হচ্ছে নানা রোগবালাইয়েও। প্রায় সময় দূর্ঘটনায় অনেক প্রাণী মারাও যাচ্ছে। বনের ভেতরে চাষাবাদ, অত্যধিক পর্যটকের চিৎকার আর হৈ হুল্লুড়।
বিব্রত ও ভীত হয়ে নিজেদের আবাস্থল ছেড়ে অন্যত্র সরতে চায় ওখানকার বন্যপ্রাণী। দীর্ঘদিন থেকে এসকল সমস্যা চলমান থাকায় সবমিলিয়ে এখন ওখানকার বাসিন্দাদের চরম সংকটাপন্ন অবস্থা দেখা দিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ