বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ডুয়েটে ইনোভেটিভ রিসার্চ আইডিয়া প্রতিযোগিতা ও সেমিনার অনুষ্ঠিত

গাজীপুর সংবাদদাতা : বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা ও উদ্ভাবন আরো ত্বরান্বিত করতে প্রথম আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেটিভ রিসার্চ আইডিয়া প্রতিযোগিতা ও ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক সেমিনার শনিবার ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুর-এর শহীদ আহসান উল্লাহ্ মাস্টার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এতে অংশগ্রহণ করেন।
ডুয়েট’র টেক্সটাাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড মোহাম্মদ আলাউদ্দিন। টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মো আবদুস সাহিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেকানিক্যাল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) অধ্যাপক ড. মো নজরুল ইসলাম, নিটারের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক ড. মো মিজানুর রহমান, কটন ম্যাক্স লিমিটেডের এম ডি শামিম মাহমুদ আহমেদ, হেলিনিক গ্রুপের চীফ অপারেটিং অফিসার মফিজুল করিম, সেন্টার ফর প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট (সিপিডি)-এর সিইও ইঞ্জিনিয়ার তুষার কুমার পাল প্রমুখ।
প্রতিযোগিতাটি মডারেশন করেন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো আব্দুল হান্নান। এছাড়া ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক সেমিনারে টেক্সটাইল খাতের খ্যাতনামা কর্ণধারগণ ক্যারিয়ার বিষয়ক আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। এই প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (বুটেক্স)-এর টেক্সপ্লোশন টিম, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে ডুয়েটের টেক্সস্মার্ট টিম ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট)-এর টুইস্ট টিম। এছাড়া বুটেক্সের ইউনিক মাইন্ড ও ডুয়েটের টেক্সটাইল ড্রীম টিমকেও পুরস্কৃত করা হয়। পরে বিজয়ীদের মধ্যে প্রাইজ মানি, ক্রেস্ট ও সনদ বিতরণ করা হয়।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলাউদ্দিন বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির ক্ষেত্রে তৈরি পোশাক শিল্প বড় ধরনের চালিকা শক্তি। এর উত্তরোত্তর উন্নয়নে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ গুরুত্বপূণ ভূমিকা পালন করছে। বর্তমানে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের পোশাক শিল্প ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এ ইতিহাস দিনদিন আরো উজ্জ্বল হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি শিল্প-কারখানাগুলোকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সঙ্গে একযোগে গবেষণা ও উদ্ভাবনের প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য অধ্যাপক ড. মো আবদুস সাহিদ সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ