ঢাকা, মঙ্গলবার 11 August 2020, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ অনিশ্চিত

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণে এখনো শতভাগ প্রস্তুতি নিতে পারেনি মার্কিন বেসরকারি মহাকাশ অনুসন্ধান ও প্রযুক্তি কোম্পানি স্পেস-এক্স।খবর ইউএনবির।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের জন্য ৭ মে তারিখ নির্ধারিত থাকলেও সেদিন তা মহাকাশের উদ্দেশে যাত্রা করতে পারছে না। কবে নাগাদ উৎক্ষেপণ করা হবে তাও বলা যাচ্ছে না।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের বরাত দিয়ে ইউএনবিকে এ তথ্য জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান।

জয় জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণে কারিগরিসহ সব প্রস্তুতি শেষ না হওয়া পর্যন্ত নির্দিষ্ট তারিখ বলা যাবে না।

আজ নিউইয়র্ক সময় দুপুরে স্যাটেলাইটটি পরীক্ষা করা হবে বলেও জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা।

স্পেস-এক্স জানিয়েছে, স্যাটেলাইট পরীক্ষা করে চূড়ান্তভাবে প্রস্তুতি নেয়ার পরই উৎক্ষেপণের তারিখ জানানো হবে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১-এর প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ মেসবাহুজ্জামান ইউএনবিকে জানিয়েছেন, আজ শুক্রবার স্যাটেলাইটের পরীক্ষা হলে উৎক্ষেপণের সময় বলা যাবে।

এ মাসে হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, চূড়ান্ত পরীক্ষার পর সেটা বলা যাবে। আর তারিখ নির্ধারিত হলে সরকারি প্রতিনিধি দল ফ্লোরিডা আসবেন।

এদিকে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার ইউএনবিকে বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ আগামী ৭ মে উৎক্ষেপণ করা হচ্ছে না।

কারণ হিসেবে তিনি জানান, আবহাওয়া ও কারিগরি কারণে তারিখ পিছিয়েছে। স্যাটেলাইটটি পরীক্ষার পর চূড়ান্ত দিন নির্ধারণ করা হবে।

‘আগামী ৪ বা ৫ মে নাগাদ উৎক্ষেপণের নতুন তারিখ জানা যেতে পারে। এখানে আমাদের কোনো হাত নেই। আমরা নিজেরা এখনো প্রতিনিধিদল পাঠাইনি। সবাই এটি উৎক্ষেপণের জন্য অপেক্ষা করছি। একটা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের আয়োজন অনেক বড় ব্যাপার। সবকিছু চূড়ান্ত হওয়ার পর এটা উৎক্ষেপণ করা হয়,’ যোগ করেন মন্ত্রী।

তিনি আরো জানান, ৭ মে উৎক্ষেপণের দিন মাথায় রেখে ২ মে ছোট একটা পরীক্ষা চালানোর কথা ছিল, কিন্তু তা হয়নি। এই পরীক্ষার জন্য ৪ মে দিন ঠিক করেছে স্পেস-এক্স।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ