বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সরকারের অবহেলায় রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্তরা উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ পায়নি -মিয়া গোলাম পরওয়ার

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার রানা প্লাজা ট্রাজেডি দিবসে এক বিবৃতিতে বলেন, ২০১৩ সালরে ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসে ১ হাজার ১৩৬ জন শ্রমকি নিহত এবং আহত প্রায় ২ হাজার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়নি। তিনি সংশ্লিষ্টদের ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান করার জন্য আহ্বান জানান।
গতকাল সোমবার রানা প্লাজা ট্রাজেডি দিবস উপলক্ষে দেয়া বিবৃতির শুরুতে রানা প্লাজায় নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকার্ত পরিবারগুলোর প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বলেন, নিহত ও আহত পরিবারগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে যে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়েছে তা খুবই সামান্য। এখনও অনেক পরিবার তাদের একমাত্র উপার্জন  সক্ষম স্বজনকে হারিয়ে আর্থিক চরম সংকটে ভুখছেন। এখনও অনেকেই বেকারত্বের অভিশাপ নিয়ে বেঁচে আছেন। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহযোগিতা করার জন্য সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি আরো বলেন, কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকদের নিরাপত্তার বিষয়টি কর্তৃপক্ষের উপর বর্তায় এবং দুর্ঘটনায় একজন শ্রমিকের মৃত্যুর দায়-দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট পক্ষ কোনভাবেই এড়াতে পারে না। রানা প্লাজা ও তাজরিন গার্মেন্টস এর মত দূর্ঘটনা যেন আর পূর্নরাবৃত্তি না ঘটে সে ব্যাপারে সকলকেই সচেতন হতে হবে।  বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, দুর্ঘটনাসহ বিভিন্ন কারণে দেশে ২৪ লাখ মানুষ কর্মক্ষমতা হারিয়েছে,যার অর্ধেকেই মানবসৃষ্ট কারণে। এ হিসেবে শুধু মানবসৃষ্ট কারণে কর্মক্ষমতা হারানোর আর্থিক ক্ষতি বছরে দেড় হাজার কোটি টাকা। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসে ১ হাজার ১৩৬ জন শ্রমিক নিহত এবং আহত হয় প্রায় ২ হাজার। ঢাকা জেলা প্রশাসক অফিসে রক্ষিত হিসাব অনুযায়ী,  রানা প্লাজার ধ্বংস্তূপ থেকে ২ হাজার ৪৩৮ জনকে জীবিত এবং ১ হাজার ১১৭ জনকে মৃত উদ্ধার করা হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ১৯ জন মারা যায়। মৃত উদ্ধারকৃতদের মধ্যে ৮৪৪ জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ডিএনএ পরীক্ষার নমুনা রেখে ২৯১ জনের অশনাক্তকৃত লাশ জুরাইন কবরস্থানে দাফন করা হয়। জীবিত উদ্ধারকৃতদের মধ্যে ১ হাজার পাঁচশ ২৪ জন আহত হন। তদের মধ্যে গুরুতর আহত হয়ে পগুত্ব বরণ করে ৭৮ জন।
তাই রানা প্লাজা ও তাজরিন গার্মেন্টসসহ সকল দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত পরিবারের আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিয়ে পরিবারগুলোকে আর্থিক সহযোগিতা দিতে  সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান।
ঢাকা বিভাগ পশ্চিম এর দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ঢাকা বিভাগ পশ্চিমের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন  ফরিদপুর স্থানীয় এক মিলনায়তনে গত ২০ এপ্রিল ফরিদপুর অঞ্চল পরিচালক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ উল্লাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খান।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খান বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি সাল্লাম এর জীবনী থেকে নেতৃবৃন্দকে নেতৃত্বের গুণাবলী অর্জন করতে হবে। কারণ রাসুলের জীবনীতেই রয়েছে শ্রমিক মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ে অনুকরণীয় নির্দেশনা।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফরিদপুর অঞ্চল উপদেষ্টা শামসুল ইসলাম বরাঢী। দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে, কাজী আবুল আবুল বাশারকে সভাপতি মাস্টার জাহাঙ্গীর আলম কে সেক্রেটারি করে ৩৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ