শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৩ মে

 

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো মামলায় অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানির তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৩ মে দিন ধার্য করেছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশীবাজারস্থ কারা অধিদপ্তরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক মাহমুদুল কবীরের আদালতে মামলাটি অভিযোগ শুনানির জন্য ধার্য ছিলো।

  বেগম খালেদা জিয়ার অন্য মামলায় কারাগারে থাকার বিষয়টি আদালতকে অবহিত করে শুনানি পেছানোর আবেদন করেন তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, এ কে এম মোশাররফ হোসেন অসুস্থ থাকায় তাদের পক্ষেও সময়ের আবেদন করেন তাদের আইনজীবীরা। শুনানি শেষে আসামিপক্ষের সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে ১৩ মে শুনানির নতুন তারিখ ধার্য করেন আদালত।

মামলাটিতে ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন, ঢাকা ক্লাবের সাবেক সভাপতি সেলিম ভূঁইয়া (সিলভার সেলিম), জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, বাপেক্সের সাবেক সচিব মো. শফিউর রহমান এবং সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি.এম ইউছুফ হোসাইনের পক্ষে তাদের আইনজীবীরা অভিযোগ শুনানি করে তাদের অব্যাহতির আবেদন করেন। আর খালেদা জিয়াসহ ছয় আসামির পক্ষে অভিযোগ শুনানি হয়নি।

ক্ষমতার অপব্যবহার করে তিনটি গ্যাসক্ষেত্র পরিত্যক্ত দেখিয়ে কানাডার কোম্পানি নাইকোর হাতে তুলে দিয়ে রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার ক্ষতির অভিযোগে মামলাটি করা হয়। ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। মামলাটি তদন্তের পর ২০০৮ সালের ৫ মে খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ