বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

সিনেমা হল বন্ধ হয়ে তৈরি হয়েছে মাদরাসা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় ছবিঘর সিনেমা হল থেকে মাদ্রাসা -সংগ্রাম

এক সময়ের বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম চুয়াডাঙ্গার সিনেমা হল গুলি বন্ধ করে তৈরি হয়েছে মাদরাসা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। জেলায় ১৩ টি সিনেমা হলের মধ্যে চালু আর মাত্র ২টি চালু থাকলেও চলছে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে। 

জানা যায়, জেলায় সর্বমোট ১৩টি সিনেমা হল ছিল। এর মধ্যে ২টি হল চলছে খুবই নাজুক অবস্থার মধ্য দিয়ে। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা শহরের রূপছায়া (বর্তমানে পান্না) ও নান্টুরাজ, সরোজগঞ্জের মিতালী, আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরে আলমডাঙ্গা টকিজ, শিলা ও জনি, জামজামি ইউনিয়নের আঁখি সিনেমা হল, দামুড়হুদা উপজেলা শহরে ছবি ঘর, দর্শনায় হিরা ও দর্শন সিনেমা হল এবং কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে মিন্টুরাজ, জীবননগর উপজেলা শহরে আধুনিক এবং মহানগর সিনেমা হলসহ মোট ১৩টি সিনেমা হল ছিলো।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা শহরের চলচিত্র অভিনেতা মরহুম সিদ্দিক জামাল নান্টুর মালিকনাধীন নান্টুরাজ সিনেমা হল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়ে আছে। সদর উপজেলার সরোজগঞ্জ মিতালী সিনেমা হল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেখানে মালিক রইস দারোগা ভূট্টা  রাখার গোডাউন করে দিয়ে ভাড়া দিয়েছে। আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের শিলা সিনেমা হল পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। সেখানকার জনি সিনেমা হলটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। একই উপজেলার জামজামি ইউনিয়নের আঁখি সিনেমা হলটি এখন গোডাউন হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। দামুড়হুদা উপজেলা শহরের ছবি ঘর সিনেমা হলটি হয়ে গেছে “ দারুস সুন্নাহ ইসলামীয়া মাদরাসা”। 

দর্শনার হিরা সিনেমা হল ভেঙ্গে তৈরি করা হয়েছে বিপনি বিতান, সেখানকার আরেকটি সিনেমা দর্শন ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। একই উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের মিন্টুরাজ সিনেমা হল ভেঙ্গে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে সেখানে চলছে চাষাবাদ। জীবননগর উপজেলা শহরের আধুনিক সিনেমা হল ভেঙ্গে তৈরি করা হয়েছে ক্লিনিক আর মহানগর সিনেমা হল ভেঙ্গে হয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গোডাউন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ