শনিবার ১১ জুলাই ২০২০
Online Edition

মধু খাতে রাষ্ট্রের থেকে বেশি আয় ১৯ বছরের আফগান বালিকার

৮ এপ্রিল, ইয়ন নিউজ : যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে মধুকে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা হিসেবে ধারণা করা হয়। তাই আফগানিস্তানে মধুর চাহিদা ব্যপক হওয়ায় জনসাধারণের মত স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীদের কাছে এই মধু চাষ একটি সুন্দর ও জনপ্রিয় কর্মসংস্থান।

এই খাতেই রাষ্ট্রীয় মধুচাষকারী সংস্থার আয় থেকে ব্যক্তিগত আয় বেশি ফ্রোজেন নামের ১৯ বছর বয়সী আফগান বালিকার। তিন বছর আগে ফ্রোজেন সামান্য কিছু ঋণ নিয়ে ২ টি মোচাক ক্রয় করে ও মধুচাষ সম্পর্কে ‘হ্যান্ড টু হ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল’ নামক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে। এই সংস্থাটির মূল উদ্দেশ্য দরিদ্রতা দূর করতে স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ দেয়া।

 ফ্রোজেন তার আত্মনির্ভরশীলতা ও কঠোর পরিশ্রম দিয়ে প্রথম চাষেই ১৬ কেজি মধু সংগ্রহ করে ও তার ঋণ পরিশোধ করে। বর্তমানে ফ্রোজেনের ১২ টি মৌচাক রয়েছে। সে তার মৌচাক থেকে প্রতি বছর প্রায় ১১০ কেজি মধু সংগ্রহ করে ১ হাজার ৪শ’ ৫০ ডলার আয় করে থাকেন। সেখানে দেশটির মধু সংরক্ষণ প্রতিষ্ঠানের এই খাতে আয় ৬শ’ ডলার।

ফ্রোজেন গণমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে জানান, তিনি যে গ্রামে বসবাস করেন সেখানে নারী কর্মসংস্থানের সুবিধা খুবই কম। তবে তিনি তার কঠোর পরিশ্রম ও আত্মনির্ভরশীলতার ভিত্তিতেই এতদূর এগিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ