সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

দুদকের লোগো-সিল ব্যবহার করে আর্থিক সুবিধা দাবির বিষয়ে সতর্কতা

 

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)-এর লোগো ও সিল ব্যবহার করে বিভিন্ন ব্যক্তিকে ভুয়া নোটিশ দিয়ে আর্থিক সুবিধা দাবি করার অভিযোগ কয়েকটি চক্রের বিরুদ্ধে। এ ধরনের প্রতারক চক্র থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে দুদক। গতকাল বৃহস্পতিবার দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ কর্মকর্তা) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, একাধিক সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্যরা দুদক কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোন, টেলিফোন, ই-মেইল ব্যবহার করে; এমনকি কমিশনের লোগো সম্বলিত ভুয়া নোটিশ বা পত্রের মাধ্যমে বিভিন্ন শ্রেণি বা পেশার ব্যক্তিদের ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে অনৈতিক আর্থিক সুবিধা দাবি করছে। এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে দুদকের কাছে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে জানিয়ে তা থেকে অব্যাহতির জন্য মিথ্যা আশ্বাস দিচ্ছে চক্রের সদস্যরা।

উপপরিচালক প্রণব ভট্টাচার্য্য জানান, দুর্নীতি দমন কমিশনে কোনও একক ব্যক্তি বা কর্মকর্তার একক অভিপ্রায় অনুযায়ী কোনও অভিযোগ হতে কাউকে অব্যাহতি কিংবা কাউকে অভিযুক্ত করার আইনি সুযোগ নেই। এছাড়া এ জাতীয় অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি এড়াতে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, সাক্ষী এবং আসামীদের সঙ্গে অনুসন্ধানকারী বা তদন্তকারী কর্মকর্তাদের সকল প্রকার যোগাযোগ লিখিত পত্রের মাধ্যমে সম্পন্ন করার নির্দেশনা দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। অভিযোগ অনুসন্ধান বা তদন্তকালে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, সাক্ষী এবং আসামীদের সঙ্গে দুদকের কর্মকর্তা কর্তৃক মোবাইল ফোন, টেলিফোন, ই-মেইল বা ব্যক্তিগত যোগাযোগ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

 প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, কোনও ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ মোবাইল ফোন, টেলিফোন, ই-মেইল বা ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগপূর্বক দুদকের কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিচয় দিয়ে অনৈতিক আর্থিক সুবিধা দাবি করলে, বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক (পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন) মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলী ( টেলিফোন নম্বর-৯৩৫২৫৫২, মোবাইল নম্বর ০১৭১১-৬৪৪৬৭৫)-এর নিকট অবহিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানানো হলো। কোনও প্রকার অনৈতিক আর্থিক লেনদেনের দায়িত্ব দুর্নীতি দমন কমিশন গ্রহণ করবে না।

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ এক জরুরি সভায় জানান, প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যে সকল সংস্থায় চিঠি দেওয়া হয়েছে তাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হবে। এ জাতীয় কর্মকান্ড দুর্নীতি দমন কমিশনের ভাবমূর্তি ক্ষুণেœর অপচেষ্টা মাত্র। তাই এদের আইনের আওতায় আনার জন্য আপনাদেরকে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাতে হবে।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, এরই মধ্যে ভুয়া নোটিশ প্রদানকারী প্রতারক চক্রের একাধিক সদস্যকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে।

গোপন তথ্যফাঁস  ঠেকাতে ব্যবস্থার নির্দেশ : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গোপনীয় তথ্য গণমাধ্যমে আসায় কর্মকর্তাদের সতর্ক করেছেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘ গোপনীয় তথ্য কোনোভাবেই যেন ফাঁস না হয়, সেজন্য সব ব্যবস্থা নিতে হবে।’গতকাল বৃহস্পতিবার নিজ কক্ষে এক জরুরি সভায় দুদক কর্মকর্তাদের তিনি এই নির্দেশ দেন।

দুদকের বিভিন্ন গোপনীয় তথ্য কীভাবে গণমাধ্যমে আসে,এমন প্রশ্ন তুলে দুদক কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ইকবাল মাহমুদ বলেন, এই বিষয়ে আরও বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কমিশন কারও ব্যক্তিগত দায়িত্বহীনতার দায় নেবে না।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ