রবিবার ১২ জুলাই ২০২০
Online Edition

কাপাসিয়ায় যৌতুকের জন্য নির্যাতন

গাজীপুর থেকে ফিরে পলাশ সংবাদদাতা: গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের জাগির চাঁদপুর গ্রামের ফজলুল হক ফজুর ছেলে কাউছারের সাথে ইসলামী শরিয়ত মতে পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের কলাপাটুয়া গ্রামের আ: সামাদ শেখের মেয়ে আমেনা বেগমের ২০০৯ সালে বিবাহ হয়। তাদের ঘর আলোকিত করে আসে একটি কন্যা সন্তান। কন্যা সন্তান জন্মের পর থেকেই আমেনার উপর নেমে আসে অমানবিক নির্যাতন কেন কন্যা সন্তান জন্ম হল। এ নিয়ে স্বামী কাউছার এবং শ্বাশুরী সেলিনা বেগম প্রায়ই আমেনাকে গালমন্ধ করত। ক্উাছার একজন মাদক সেবি এবং বিক্রেতা মাদকের জন্য পুলিশ তাকে আটকও করে।
সে নেশা গ্রস্ত হয়ে প্রায় সময় তার স্ত্রীর উপর নির্যাতন করত। স্বামী কাউছার তার স্ত্রী আমেনাকে ব্যবসা করার জন্য ২ লাখ টাকা তার বাপের বাড়ি থেকে এনে দেওয়ার জন্য বলে, আমেনা এই টাকা দেওয়ার কথা অস্বীকার করলে তার স্বামী ও শ্বাশুরী সেলিনা বেগম লাঠি সোটা দিয়ে  এলোপাথারি আমেনাকে আঘাত করতে থাকে এক পর্যায়ে আমেনা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে পরে এলাকাবাসী আমেনাকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে কিছুটা সুস্থ হলে আমেনা ২৭ মার্চ গাজীপুর পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ দাখিল করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ