রবিবার ১২ জুলাই ২০২০
Online Edition

তালতলীতে বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামীর পলায়ন

তালতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা: গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে এক গৃহবধূ অসুস্থ্য হয়ে পরে। স্বামী ঐ গৃহবধুকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাতে তার মৃত্যু হয়। লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী পালিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনার তালতলী উপজেলার উত্তর ঝাড়াখালী গ্রামে। জানা গেছে, উপজেলার কড়ইবাড়ীয়া ইউনিয়নের উত্তর ঝাড়াখালী গ্রামের আলমগীর সিকদারের কন্যা সাথী আকতারের বিয়ে হয় ২০১৫ ইং সালে একই গ্রামের মন্নান হাওলাদারের পুত্র লিটন হাওলাদারের সাথে। বিয়ের পর থেকে বিদেশ যাওয়ার নামে খরচ হিসেবে লিটন স্ত্রীর কাছে ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে আসছে। যৌতুকের নামে টাকা দেওয়াতো দুরের কথা স্বামীকে বিদেশ যেতে বাধা দিচ্ছে স্ত্রী সাথী আকতার। স্ত্রীর বাঁধায় লিটন গোপনে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য সকল কাগজপত্র সম্পন্ন করে। আগামী কাল ২৭মার্চ লিটনের বিদেশ যাওয়ার ফ্লাইডের খবর শুনে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়। এক পর্যায় শনিবার বিকেলে লিটন বিদেশ যাওয়ার জন্য বাড়ী থেকে রওয়ানা দিয়ে ঢাকার গাড়ী স্ট্যান্ড কড়ইবাড়ীয়া বাজারে আসলে স্ত্রী সাথী আকতারের বিষপানের খবর শুনে। লিটন বাড়ী ফেরৎ গিয়ে অসুস্থ্য সাথীকে প্রথমে আমতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাতে সাথী মারা গেলে লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী লিটন ও তার আত্মীয়রা পালিয়ে যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ