বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

৪২ বছর ধরে ভারতে জেল খাটার পর দেশে ফেরত

খুলনা অফিস : ৪২টি বছর ধরে ভারতের একটি জেলখানায় বন্দী থাকার পর খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগরে বাগেরহাট জেলার ৮০ বছরের এক বৃদ্ধ। শনিরার সকাল ৮টার দিকে তিনি চুকনগর বাসস্ট্যান্ডে আসেন। এ সময় তাকে এক নজর দেখার জন্য শত শত উৎসুক জনতা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে হাজির হয়। পরে পুলিশের সহযোগিতায় তিনি পরিবারের কাছে ফিরে যান।
বাগেরহাট জেলার মোল্লাহাট উপজেলার কুলিয়া গ্রামের আকিম উদ্দিন মিয়ার ছেলে নিজাম উদ্দিন মিয়া (৮০) জানান, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর তিনি মস্তিষ্কজনিত সমস্যার কারণে বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। পথ ভুলে নিজের অজান্তে তিনি ভারতের সীমান্তে যান। এ সময় ভারতের পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে যায়। পরের দিন তাকে জেলখানায় চালান করে দেয়া হয়। ভারতের জেলখানায় বসে বসে তার জীবন থেকে ৪২টি বছর কেটে যায়। গত ৩০ মার্চ রাত ৮টার দিকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এরপর তিনি নিজের চেষ্টায় বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। পরে সাতক্ষীরার দিক থেকে একটি বাসে উঠে চুকনগরে আসেন। এ কথাগুলো তিনি স্থানীয় সাংবাদিক, পুলিশ ও উৎসুক জনতার সাথে বলার সময় তার চোখ দুটি পানিতে ছল ছল করছিল।
বাকরুদ্ধ স্বরে তিনি ৪২ বছরের বিদেশের জেলে বন্দী জীবনের বর্ণনা দিতে গিয়ে বারবার দীর্ঘশ্বাস নিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি তার মুরাদ মিয়া ও ফরহাদ মিয়া নামে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে আছে বলে জানান। এ সময় তার কষ্টের বর্ণনা শুনে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অনেক উৎসুক জনতার চোখ দিয়ে তখন পানি চলে আসে। এক পর্যায়ে উপস্থিত অনেকে তার সাথে ছবি তুললে ও হাসি রহস্য করলে তিনি স্বাভাবিক হন এবং বলতে থাকেন আমাকে আমার পরিবারের কাছে পাঠিয়ে দেও তোমরা। পরে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ (ওসি) এমদাদুল হক, এসআই জাহাঙ্গীর আলম ও কন্সটেবল সোহেলের সার্বিক সহযোগিতায় তার পরিবারের সদস্যদের সংবাদ দেয়া হয়। সংবাদ পেয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর বিকেলে তারা চুকনগরে আসেন এবং তাকে পেয়ে পরিবারের সবাই মহা খুশিতে সন্ধ্যায় তাকে বাড়িতে নিয়ে যান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ