সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ব্যাট-বলের লড়াইয়ে জমে উঠেছে  ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট

স্পোর্টস  ডেস্ক : বল হাতে আগুন ঝরিয়েছেন স্টুয়ার্ট ব্রড। ব্যাট হাতে প্রতিরোধ গড়েছেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও বিজে ওয়াটলিং। ব্যাট-বলের লড়াইয়ে জমে উঠেছে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজ নির্ধারণী ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট। ইংল্যান্ডের করা ৩০৭ রানের জবাব দিতে নেমে ৩৬ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। অর্ধেক ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে অল্পরানে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয় স্বাগতিকদের। নতুন বলে ব্রড হয়ে উঠেন বিধ্বংসী। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরিয়ে দেন ওপেনার টম লাথামকে। এরপর একে একে রস টেলর (২) ও হেনরি নিকোলসকে (০) দ্রুত আউট করেন। অপরপ্রান্তে আঘাত হানেন জেমস অ্যান্ডারসনও। ‘বিগ ফিস’ কেন উইলিয়ামসনকে (২২) ফেরানোর আগে জিত রাভালকেও (৫) আউট করেন অ্যান্ডারসন। প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানের মধ্যে কেন উইলিয়ামসনই ছুঁতে পারেন দুই অঙ্ক। ষষ্ঠ উইকেটে প্রতিরোধ পায় কিউইরা। দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে যান কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও বিজে ওয়াটলিং। ১৪২ রানের জুটি গড়েন তারা। সেটাও ৩০১ বলে। কিন্তু দিনের খেলা শেষ হওয়ার ঠিক ৩৩ বলে আগে হঠাৎ পথ ভুলে বসেন গ্র্যান্ডহোম। ক্যারিয়ারের সবথেকে লম্বা (বলের হিসেবে) ইনিংস খেলে আউট হন ব্রডের বলে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে।

১৫১ বলে ৭ বাউন্ডারিতে ৭২ রান করেন ডানহাতি এ অলরাউন্ডার। দিনের শেষ প্রান্তে গ্র্যান্ডহোমের উইকেট নিয়ে ইংলিশদের এগিয়ে রাখেন ব্রড। ওয়াটলিং ৭৭ ও টিম সাউদি ১৩ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন। সব মিলিয়ে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৯২। এখনও ১১৫ রানে পিছিয়ে তারা। ৩৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দিনের সেরা বোলার ব্রড। ৪৩ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন অ্যান্ডারসন। এর আগে ৮ উইকেটে ২৯০ রানে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ইংল্যান্ড। ৯৭ রানে অপরাজিত থাকা জনি বেয়ারস্টো তুলে নেন ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি। আর ১০ রানে দিন শুরু করা লিচ ফেরেন সাউদির বলে ১৬ রানে। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে বেয়ারস্টো আউট হলে ৩০৭ রানে থামে ইংল্যান্ডের ইনিংস। ১৭০ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কায় ১০১ রান করেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান।ডেন টেস্ট জিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট ড্র করলেই ৩৪ বছরের অপেক্ষার অবসান হবে কিউইদের। ১৯৮৪ সালে ঘরের মাঠে শেষ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতেছিল নিউজিল্যান্ড। এবার সেই সুযোগটি আবার এসেছে।  তবে শুরুটা ভালো হয়নি তাদের। দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো করতে না পারলে ইংল্যান্ড ম্যাচ জিতেও নিতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ