বুধবার ২৫ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

নিরপেক্ষ হলে সব নির্বাচনেই জাতীয়তাবাদী শক্তি বিজয়ী হবে -খালেদা জিয়া

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে থাকা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে এসে তার আইনজীবীরা জানিয়েছেন, বেগম খালেদা জিয়ার মনোবল অনেক উচ্চে। তিনি পিছিয়ে যাওয়ার মাসনিকতা পোষণ করেন না। তাদেরকে বেগম জিয়া বলেছেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সব নির্বাচনেই জাতীয়তাবাদী শক্তি বিজয়ী হবে।
গতকাল রোববার বিকালে কারাগারে যান ৬ জন সিনিয়র আইনজীবী। তারা হলেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, আবদুর রেজাক খান, এডভোকেট মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জয়নুল আবেদীন এবং সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। গতকাল বিকাল ৪টার দিকে তারা কারাগারে যান। এর আগে দুপুর ১২ টায় বিএনপির চেয়ারপার্সনের মিডিয়া উইং সদস্য শামছুদ্দিন দিদার কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আইনজীবীদের তালিকা সম্বলিত চিঠি হস্তান্তর করেন। বিকেল ৪টার দিকে তারা কারাগারের ভেতর প্রবেশ করেন। সেখান থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন জাতীয় সংসদের সাবেক স্পিকার সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার। তিনি বলেন, ম্যাডাম পিছিয়ে যাওয়ার লোক না। তার মনোবল অনেক ভাল।
খালেদা জিয়ার আরেক আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নাল আবদীন বলেন, সদ্য শেষ হওয়া সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবি সমিতি নির্বাচনে জয়লাভ করায় ম্যাডাম আমাদেরকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন আইনজীবীরা আদালতে যে ভূমিকা রেখেছেন তিনি (ম্যাডাম) খুব খুশি হয়েছেন। তিনি আরও বলেছেন বাংলাদেশে আইনজীবীরা হল বিবেক, এই আইনজীবীরা যেহেতু জাতীয়তাবাদী শক্তিকে বিজয়ী লাভ করেছেন এবং যদি আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকেন ভবিষ্যতে যেখানে যে নির্বাচন হবে ইনশাআল্লাহ সেই নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী শক্তি বিজয় লাভ করবে।
তিনি বলেন, আমরা ম্যাডামকে আশ্বস্ত করেছি আমরা আইনি লড়াই যেভাবে চালিয়ে যাচ্ছি আপনাকে যে যেভাবেই যেখান থেকে যে কথাই বলুক না কেন আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে সিনিয়র আইনজীবীরা আলাপ আলোচনা করে আইনের বিভিন্ন দিক বিচার বিশ্লেষণ করে মামলাগুলো এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। ইনশাআল্লাহ মামলাগুলো আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে আমরা জয়লাভ করবো।
জয়নাল আবদীন বলেন, আমরা ম্যাডামকে আরও বলেছি সরকার রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে যেভাবেই আপনাকে কারাগারে রাখার চেষ্টা করুক না কেন আজকে যেহেতু আইনজীবীরা ঐক্যবদ্ধ তাই আমরা আশা করি আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে আপনাকে আমরা কারাগার থেকে বের করে নিয়ে আসতে পারবো।
 চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার শারিরীক অবস্থা ভাল জানিয়ে সদ্য পুনঃনির্বাচিত হওয়া সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির এই সভাপতি বলেন, ম্যাডামের শারীরিক অবস্থা অনেক ভাল সেই সাথে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জাতীয়বাদী প্যানেলের বিজয়ে তার মন আরও চাঙ্গা হয়ে গেছে। কাজেই আমরা মনে করি যে যেভাই বলুক না কেন ম্যাডাম মনের দিক থেকে অনেক শক্তিশালী।
বিদেশি আইনজীবী নিয়োগে নেত্রীর সাথে কোনো কথা হয়েছে কিনা সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশি আইনজীবী নিয়োগ করা অপরাধ নয়। আমাদের ওপর যে ম্যাডামের আস্থা নেই এ কথা তিনি কখনও বলেন নাই। আজকেও তিনি আমাদেরকে বলেছেন আপনারা সিনিয়র আইনজীবী আপনাদের ওপর আমার যথেষ্ট আস্থা রয়েছে।
আরেক অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, দেশে আইনের শাসন বলতে কিছু নেই। তাই মুক্তি পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, ম্যাডাম আমাদের সাথে কোনো রাজনৈতিক আলোচনা করেননি। আমরা দেশনেত্রীকে আশ্বস্ত করেছি দেশে যদি আইনের শাসন থাকে তাহলে বর্তমান স্বৈরশাসক মিথ্যা সাজানো প্রতিহিংসামূলক মামলা দিয়ে আপনাকে কারাগারে আটকে রাখতে পারবে না, ইনশাআল্লাহ অবিলম্বে আপনি মুক্তি লাভ করবেন।
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ম্যাডাম আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন  হাইকোর্ট ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্তদের জামিন দিয়ে দেয় আমার হচ্ছে না কেন? তিনি (ম্যাডাম) আরও বলেন, আমি কোন অন্যায় করিনি।আমার বিরুদ্ধে যতগুলো মামলা করা হয়েছে সবগুলোলেই নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকারের ষড়যন্ত্র।
প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারু জ্জামান। বিশেষ জজ আদালতের ওই রায়ের পর থেকে কারাগারে আছেন খালেদা জিয়া। ইতোমধ্যে খালেদা জিয়ার জামিন ও খালাস চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার অর্থদণ্ড স্থগিত রেখে জামিন দিলেও পরে আপিল বিভাগে তা স্থগিত হয়ে যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ