শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

অসম প্রতিযোগিতা থেকে শিশুদের রক্ষা করতে হবে

খুলনা অফিস: খুলনা মহানগরীর মুন্সীপাড়া দ্বিতীয় গলির শিক্ষা শেকড় বিদ্যাপীঠ আয়োজিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, আগামী প্রজন্মকে মেধাহীন করতে খাঁচায় বন্দি করে শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। বইয়ের বোঝা বাড়িয়ে কোমলমতি শিশুদের ঠেলে দেয়া হচ্ছে এক অসম প্রতিযোগিতার দিকে। এ থেকে শিশুদের রক্ষা করে তাদেরকে সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রতি মনোনিবেশ করতে হবে। মেধা ও মননের বিকাশে খেলাধুলার কোন বিকল্প নেই বলেও বক্তারা উল্লেখ করেন।

রোববার বিকেলে স্কুল চত্বরে অনুষ্ঠিত এ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিদ্যাপীঠের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক কেএমএ জলিলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক কোষাধ্যক্ষ মো. রাশিদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, দৈনিক পূর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার এইচ এম আলাউদ্দিন, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন খুলনার সহ-সভাপতি এহতেশামুল হক শাওন, সরকারি আযমখান কমার্স কলেজের প্রভাষক শামীমুজ্জামান সবুজ ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. হুমায়ুন কবির।

স্বাগত বক্তৃতায় ব্যিাপীঠের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক কেএমএ জলিল বলেন, ব্যতিক্রমী লক্ষ্য নিয়ে শিক্ষা শেকড় বিদ্যাপীঠ গড়ে তোলা হয়েছে। এ স্কুলের প্রধান লক্ষ্যই হচ্ছে শিশুকে স্কুলেই পাঠদান সম্পন্ন করা। যাতে শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে খেলাধুলায় মগ্ন থাকতে পারে। কেননা সারাদিন বই পড়ার প্রতিযোগিতায় লিপ্ত থাকলে শিশুরা যান্ত্রিক জীবন থেকে বের হয়ে আসতে পারবে না। এছাড়া শিশুদের নৈতিকাত শিক্ষার প্রতিও গুরুত্ব দেন অন্যান্য বক্তারা। নৈতিকতা ও ধর্মীয় মূল্যবোধ ছাড়া শিশুদের মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা অসম্ভব বলেও বক্তারা উল্লেখ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ