বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতনের প্রতিবাদে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার: পুলিশ হেফাজতে ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সহ সভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে পৈশাচিক নির্যাতন ও হত্যা, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং সারা দেশে দলের নেতা কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা, হামলা, গুম ও খুনের প্রতিবাদে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছে বিএনপি। কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি’র উদ্যোগে থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বাড্ডা থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এজিএম সামসুল হকের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। তেজগাঁও থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল বিএফডিসি’র সামনে থেকে শুরু হয়ে হাতিরঝিলে এসে শেষ হয়। মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব সোহেল রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল আশা ভার্সিটির সামনে হতে শুরু হয়ে কলেজ গেটে গিয়ে শেষ হয়। এছাড়া বিমানবন্দর থানা, রূপনগর,  বনানী, দক্ষিণখান,  দারুস সালাম,  উত্তরখান, শাহআলী,  রামপুরা,  কাফরুল থানায় মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
বিএনপি জানায়,  খিলক্ষেতে একটি বিক্ষোভ মিছিল হাজী ফজলুল হক ফজলুর নেতৃত্বে খিলক্ষেত পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে শুরু হলে পুলিশ চারপাশ ঘিরে ফেলায় মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এতে বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হয়। মিছিলে থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। ভাষানটেক ও ক্যান্টনমেন্ট থানার একটি যৌথ বিক্ষোভ মিছিল কচুক্ষেত বাজারের সামনে থেকে করতে চাইলে আওয়ামীা সন্ত্রাসী ও পুলিশের উপস্থিতিতে করা সম্ভব হয়নি। উত্তরা পূর্ব থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল উত্তরা পূর্ব থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শুরু করলে পুলিশী তৎপরতায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে শুরু হলে পুলিশী বাঁধায় মিছিল করা সম্ভব হয় নাই। শেরে বাংলা নগর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, শাহ আলম, সোহেল সহ থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি স্কয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে শুরু হয়ে সমরিতা হাসপাতালের সামনে গিয়ে পুলিশি বাঁধায় পন্ড হয়ে যায়।
সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এবং রিমান্ডের নামে পুলিশের নির্মম অত্যাচারে ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন মিলন হত্যা ও সারাদেশে বিএনপির নেতা কর্মীদের গ্রেফতার, নির্যাতন ও নগ্ন হামলার প্রতিবাদে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র উদ্যোগে সকল থানায় থানায় কালো ব্যাচ ধারণ করে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশি বাধার মধ্যেও বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই কর্মসূচী সফল করেন। কর্মসূচী চলাকালে বিভিন্ন স্থানে পুলিশের ৭/৮ জনকে গ্রেফতার করে এবং পুলিশী হামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ ১৪/১৫ জন আহত হন।
কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে শাহবাগ থানার অপর একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি আবুল হাসান তালুকদার ননী ও সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাইদ এর নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল পল্টন প্রীতম হোটেলে সামনে থেকে শুরু হয়ে বিজয় নগর নাইটএংগের মোড়ে গিযে শেষ হয়। ইউনুস মৃধার নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল খিলগাঁও পুলিশ ফাড়ী হতে খিলগাঁও চৌরাস্তা গিয়ে শেষ হয়। মতিঝিল থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়া রমনা থানা, কলাবাগান, চকাবাজার, যাত্রাবাড়ী,  কামরাঙ্গীর চর, শ্যামপুর, কদমতলী, গেন্ডারিয়া, সূত্রাপুর, ওয়ারী, ডেমরা,  বংশাল, লালবাগ, হাজারীবাগ, মুগদা, পল্টন, নিউমার্কেট, সবুজবাগ, ধানমন্ডি থানার নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ মিছিল করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ