বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ইসলামী ঐক্যজোট ঢাকা মহানগর ৪১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন

সভাপতি            সাধারণ সম্পাদক

ইসলামী ঐক্যজোট ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক কমিটির এক সভা মাওলানা মোঃ ইলিয়াস আতহারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মাওলানা আবদুর রকিব এডভোকেট। বক্তব্য রাখেন মহাসচিব মাওলানা অধ্যাপক আবদুল করিম খান, যুগ্ম মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা শওকত আমীন। ইসলামী ঐক্যজোট ঢাকা মহানগর মাওলানা মোঃ ইলিয়াস আতহারীকে সভাপতি ও মাওলানা আনোয়ার হোসাইন আনসারীকে সাধারণ সম্পাদক করে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয় ২০১৮ ও ২০১৯ সেশন। অন্যান্যরা হলেন সহ-সভাপতি মাওলানা কাজী যোবায়ের মাসুদ, মুফতি বরকত উল্লাহ, মাওলানা রাশেদ বিন নূর, পীরজাদা সৈয়দ মুহাম্মদ হাচ্ছান, মাওলানা মুফতি হোসাইন আহম্মদ, যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা আরমান হোসাইন, মাওলানা নূরুল হক আরমান ও মাওলানা নাজমুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ শামীম উজ জামান আযাদ, অর্থ সম্পাদক মাওলানা মুফতি ওবায়দুল্লাহ, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহম্মদ উল্লাহ, দপ্তর সম্পাদক কাওসার আহম্মেদ, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন মাহমুদ, নির্বাহী শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা গোলাম মোস্তফা শাহীন, নির্বাহী সদস্য মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, সদস্য আব্দুল হক, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ, মাওলানা রবিউল ইসলাম প্রমুখ। 

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এডভোকেট এম এ রকিব বলেন, ওলামায়ে কেরামকে ইসলাম প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বর্তমান শাসন ব্যবস্থা আইয়ামে জাহেলিয়াতকেও হার মানিয়েছে। ঈমান, আমল নিয়ে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে। ৯৩% মুসলমানের দেশে সংবিধানে আল্লাহর ওপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস থাকে না তা হতে পারে না। সরকার ঘুষ, দুর্নীতি রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি দিয়েছে। সরকারের মন্ত্রী এমপির বক্তব্যে তা ফুটে ওঠেছে। অপরদিকে ছাত্রলীগ, যুবলীগের তান্ডবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো মিনি ক্যান্টনমেন্টে পরিণত হয়েছে। ২০ দলীয় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে বিভিন্নভাবে একের পর এক তালবাহানা চালাচ্ছে যা দেশের জনগণ মেনে নিবে না। তিনি অবিলম্বে খালেদা জিয়া সহ সকল রাজনৈতিক নেতা কর্মীদের মুক্তির দাবি করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ