শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

জীব-জগৎ-প্রকৃতি এবং মানুষ একই সূত্রে গাঁথা

চট্টগ্রাম অফিস : ‘বিশ্ব বন্য প্রাণী দিবস’ উপলক্ষে সম্প্রতি চিটাগং ইউনিভার্সিটি বার্ড ক্লাব (সিইউবিসি)-এর উদ্যোগে বন্য প্রাণী সংরক্ষণে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় জীব বিজ্ঞান অনুষদে দিনব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে ছিল-আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ওয়াইল্ড রেইস, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা (স্কুলপর্যায়), আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় পাখি চেনা প্রতিযোগিতা, বার্ড ফাজল প্রতিযোগিতা এবং এ সকল প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ। সকাল ৯.৩০ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের   উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চ.বি. জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুর রহমান, চিটাগং বার্ড ক্লাব-এর সভাপতি ডা. মহিউদ্দিন সিকদার এবং চট্টগ্রাম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জনাব এস.এম. গোলাম মাওলা।
চ.বি. প্রাণি বিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. এম. ফরিদ আহসানের সভাপতিত্বে এবং উক্ত বিভাগের শিক্ষার্থী ফাহমিদা ফারজানা ও সৈয়দ নিয়াজ মোর্শেদের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে উক্ত বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং সিইউবিসি সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  উপ-উপাচার্য বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস-২০১৮ উপলক্ষে বন্য প্রাণি সংরক্ষণ কার্যক্রমকে সাবলীল ও গতিশীল করার প্রয়াসে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করায় সিইউবিসি সদস্যবৃন্দকে   শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, বন্যপ্রাণী প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ এবং জীব-জগৎ প্রকৃতি ও মানুষ একইসুত্রে গাঁথা। তিনি বলেন, মানবকূলের স্বাভাবিক জীবন অব্যাহত রাখতে বন্য প্রাণি সংরক্ষণে সকলকে বিবেকপ্রসূত হয়ে বন্য প্রাণির প্রতি সহানুভূতিশীল হতে হবে। একশ্রেণীর বিবেক বিবর্জিত মানুষ জ্ঞাতসারে অথবা জ্ঞানের স্বল্পতাহেতু বন্য প্রাণি হত্যা করছে, যা জীব বৈচিত্র্যের জন্য হুমকীস্বরুপ।
এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে বন্য প্রাণী সুরক্ষায় সকলকে দায়িত্বশীল হতে হবে। মাননীয় উপ-উপাচার্য সার্বিক কর্মসূচির সফলতা কামনা করে এর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।উলে¬খ্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজের বিপুল সংখক শিক্ষার্থী অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতার ইভেন্টসমূহে   অংশগ্রহণ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ