বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

গোবিন্দগঞ্জে ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

গাইবান্ধা থেকে জোবায়ের আলী: উত্তরবঙ্গের প্রবেশ দ্বার শস্যভা-ার হিসাবে খ্যাত গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১ টি পৌরসভা ও ১৭ টি ইউনিয়ন। এবার শস্যভা-ার খ্যাত এসব জমিতে অন্যান্য বছরের তুলনায় ব্যাপক ভাবে কৃষকেরা ভুট্টা চাষে ঝুঁকে পড়ায় ভুট্টার বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছে কৃষকেরা।  উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ও নদীর তীরজুড়ে এখন সবুজের সমারোহ।  ভুট্টা চাষে বাম্পার ফলনের আশায় কাকডাকা ভোর থেকে কৃষক মাঠে ভুট্টার পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছে।  বিভিন্ন শ্যালো মেশিন, ডিপটিওবয়েল ও বিল থেকে ভুট্টার ফলন ভাল করতে কৃষক পানি সেচ দিচ্ছে প্রয়োজন মত। এ উপজেলার উপর দিয়ে এবার পর পর দু’বার স্মরণকালের বন্যা হয়ে গেছে।  কিন্তু বন্যার পর আবহাওয়া অনুকুলে ও আধুনিক কৃষি প্রযুক্তিতে কৃষকদের আগ্রহ সৃষ্টি হওয়ায় স্বল্প খরচে যথা সময়ে কৃষকেরা এবার ভুট্টার বাম্পার ফলন পাবে বলে অভিজ্ঞ মহল ধারণা করছেন।গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর জানান, এবারে উপজেলায় ভুট্টা চাষে লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে ২৩ হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হয়েছে।  ভুট্টা চাষে খরচ কম অথচ ফলন ও দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকেরা ভুট্টা চাষে আগ্রহ বেশি পরিলক্ষিত হচ্ছে।
উপজেলার কাটারবাড়ী ইউনিয়নের ভুট্টা চাষী তাজুল ইসলাম প্রধান বলেন, এলাকার যে সব জমিতে পূর্বে বোরো চাষ করা হতো, এবার সেগুলোতে ভুট্টা চাষ করা হচ্ছে। ভুট্টার উৎপাদন খরচ যেমন কম দামও তেমন বেশি। এ জন্য তারা ভুট্টা চাষে বেশি ঝুঁকে পড়ছেন। উপজেলা কৃষি বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা পিপিএম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বিগত বছরের তুলনায় এলাকায় এবার ভুট্টার আবাদ অনেক বেশি হয়েছে। কৃষকেরা যাতে ভুট্টা চাষে যথাযথ ভাবে উপাৎদন করতে পারে এবং স্বল্প খরচে উচ্চ ফলনশীল ভুট্টা উৎপাদন করতে পারে এ জন্য প্রতিনিয়ত কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি অফিসার সাহেরা বানু জানান, সকল প্রকার ফসল উৎপাদনে কৃষকদের আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করছি।  যাতে করে কৃষকেরা সহজ ভাবে কৃষি উপকরণ পায়।  বিশেষ করে বীজ, সার ও তেল এর জন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছি।  এবার ভুট্টার ফলন ভাল হয়েছে এবং বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ