সোমবার ০১ জুন ২০২০
Online Edition

নন্দীগ্রামে রণবাঘা হাটের জায়গা ভূমিদস্যুদের দখলে

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) সংবাদদাতা: বগুড়ার নন্দীগ্রামে রণবাঘা হাটের জায়গা ভূমিদস্যুদের দখলের হিড়িক পড়েছে। এ প্রবণতা কখনোই থামছে না। যার কারণে হাটের জায়গা সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। নন্দীগ্রাম উপজেলার দক্ষিণ সীমান্তের প্রাচীনতম রণবাঘা হাটের বিপুল পরিমাণ জায়গা থাকলেও এখন আর তা নেই। স্থানীয় ভূমিদস্যুরা হাটের জায়গা বিক্রয় করে আর্থিক ফায়দা লুটছে। সে কারণে সরকারী মূল্যবান হাটের জায়গা অবাধে জবরদখল হয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি মাহবুবুর রহমান ও রায়হান আলী তালুকদার রণবাঘা হাটের জায়গায় পাকা স্থাপনা নির্মাণ কাজ শুরু করে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতার জানতে পেরে ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা ফজলুল হককে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়। এরপর ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা ফজলুল হক সরজমিনে পরিদর্শন করে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। এ বিষয়ে ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা ফজলুল হকের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, মাহবুবুর রহমানের জায়গার দাগ নাম্বার ভিন্ন। রায়হান আলী তালুকদারের জায়গা হাটের জায়গায় পড়েছে।
স্থানীয়রা বলেছে, মাহবুবুর রহমান ও রায়হান আলী তালুকদারের জায়গা হাটের জায়গা। তারা নিজেরাই কাগজপত্র তৈরী করে মালিকানা দাবি করছে। যদি তাদের মালিকানা জায়গা হতো তাহলে এতদিন হাটের জায়গা হিসেবে ছিল কিভাবে? তাই বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ