মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০
Online Edition

বাংলাদেশে বিনিয়োগের আরও অনকূল পরিবেশ চান দাই কুয়াং

বিডিনিউজ : বিনিয়োগের জন্য আরও অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ভিয়েতনামের প্রেসিডেন্ট ত্রান দাই কুয়াং।
গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার একটি হোটেলে ভিয়েতনাম-বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের এক অনুষ্ঠানে দাই কুয়াং এই আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, “বাংলাদেশের বিদ্যুৎ-গ্যাস, টেলিকম, কৃষিপণ্য, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প, অবকাঠামো ও  তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী ভিয়েতনাম। বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য আরও অনুকূল পরিবেশ তৈরি করার আহ্বান জানাই আমি।”
দাই কুয়াং বলেন, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক সম্প্রসারণের অনেক সুযোগ রয়েছে। দুই দেশের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগাকারীরা সেই সুযোগ কাজে লাগাবে বলেই তিনি বিশ্বাস করেন।
“চলতি বছরই দুই দেশের বাণিজ্য এক বিলিয়ন ডলার এবং ২০২০ সালের মধ্যে দুই বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে বলে আমি মনে করি।”
বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম বাণিজ্য সম্প্রসারণে দুই দেশের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদেরও কাজ করার আহ্বান জানান দাই কুয়াং।
অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা ও দারিদ্র্য বিমোচনে বাংলাদেশকে ‘ রোল মডেল’ অভিহিত করে ভিয়েতনামের রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, “বাংলাদেশের উন্নয়নে আমি অভিভূত। স্বাধীনতার সংগ্রামের পর বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিক পুনর্গঠন এবং উন্নয়নে কাজ করছে।”
বিনিয়োগ পরিবেশের উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা অনুষ্ঠানে তুলে ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ভিয়েতনামের বিনিয়োগাকারীদের এ দেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান।
এফবিসিসিআই ও ভিয়েতনামের প্ল্যানিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট মন্ত্রণালয়ের যৌথ আয়োজনে এ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন ও সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম বক্তব্য দেন।
চামড়াজাত ও হিমায়িত খাদ্যের বাণিজ্য সম্প্রসারণে এফবিসিআই ও ভিয়েতনামের ব্যবসায়ীদের মধ্যে দুটি সমঝেতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয় এ অনুষ্ঠানে।
রাষ্ট্রপতি মো আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে তিন দিনের সফরে রোববার ঢাকা পৌঁছান ভিয়েতনামের প্রেসিডেন্ট ত্রান দাই কুয়াং। গত ১৪ বছরে এটাই ভিয়েতনামের কোনো রাষ্ট্রপ্রধানের প্রথম বাংলাদেশে প্রথম সফর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ